ঢাবির ঘ ইউনিটে পুনরায় পরীক্ষা: একটি মেরুদণ্ডের বিজয়


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-10-23 16:42:36 BdST | Updated: 2018-11-18 00:18:09 BdST

শাহীন আব্দুল্লাহঃ প্রশ্ন ফাঁস হওয়ায় ঢাবির ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে অনশন করে আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আক্তার হোসেইন। প্রায় ৩ দিন না খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। কেউ আন্দোলন না করায় প্রথমে তিনি একাই অনশনের বসে পড়েন।

পরে রাতে তার অনশনে সংহতি জানায় করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ, বিভিন্ন বাম ছাত্র সংগঠন এবং সাধারণ শিক্ষার্থীরা। 

অনশনকারীর পাশে ছাত্রলীগ 

অনশনের দ্বিতীয় দিন থেকে পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে সরব হয় ছাত্রলীগ। তদন্ত সাপেক্ষে পুনরায় পরীক্ষা নেয়ার দাবি জানায় সংগঠনটি। 

ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ছাত্রদল ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে না পারলেও শাহবাগে বিক্ষোভ মিছিল করে বলে জানায় এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে। পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানায় ঢাবির বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। 

সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ 

আখতার ঢাবির জিয়া হলের আবাসিক ছাত্র এবং তিনি রংপুরের একটি মাদ্রাসা থেকে আলিম পাশ করেছেন।

আখতার বিকালে অনশনের বসলে সন্ধায় তার সাথে সংহতি জানায় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।  তার কিচ্ছুক্ষণ পরেই সংহতি জানাতে আসেন ঢাবি ছাত্রলীগের নেতারা।

আক্তার 

সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী তখন প্রক্টরকে বলেন, 'শাক দিয়ে মাছ ঢাকা যাবেনা। দ্রুত সিদ্ধান্ত নিন। সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রশ্ন ফাঁস মেনে নিবেনা। পরিক্ষা বাতিল না করলে আমরা তাদের নিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলব।'  

পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে ছাত্রলীগের মৌন মিছিল 

১২ অক্টোবর ঢাবির ঘ ইউনিটের পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে প্রশ্ন ফাঁসের প্রমাণ পায় ঢাবি সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা। তারা তা বিশ্ববিদ্যালয়কে জানালে তদন্ত কমিটি গঠন করে ঢাবি। এই কমিটিও প্রমাণ পায় প্রশ্ন ফাঁসের। কিন্তু ফল বাতিল না করায় ক্যাম্পাসে গড়ে উঠে আন্দোলন। 

ভিসিকে স্মারকলিপি দিচ্ছে ছাত্রলীগ 

অনশনকারী আখতার হোসেন অনশনের সময় গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি ঘ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে এখানে বসেছি। যে প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে সেটা ফাঁস হওয়া প্রশ্ন। ফাঁস হওয়া প্রশ্নে আপনারা নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি করাবেন, এটা আমি মেনে নিতে পারি না।’ তিনি বলেন, ‘আমি বিবেকের জায়গা থেকে বলবো পরীক্ষা বাতিল করে পুনরায় গ্রহণ করা হোক। প্রকৃত মেধাবীদের মেধার মূল্যায়ন করা হোক।

অনশন 

এসব ঘটনার প্রেক্ষিতে ঢাবির ঘ ইউনিটে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ডিনস কমিটি। ২৩ অক্টোবর মঙ্গলবার দুপুরে আয়োজিত ঢাবির বিভিন্ন অনুষদের ডিনদের সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাবির উপাচার্য অধ্যাপক আক্তারুজামান খান। 

আন্দোলন সফল করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ছাত্রলীগ। 

১৬ অক্টোবর ঢাবির ঘ ইউনিটের প্রকাশিত ফলাফলে দেখা যায়, ১৮ হাজার ৪৬৪ জন শিক্ষার্থী পাশ করে। এরাই পুনরায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পরিক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।পরীক্ষার তারিখ পরবর্তীতে ঘোষণা করা হবে। এই অনুষদে পাশ করাদের মধ্যে মেধা তালিকায় থাকা শিক্ষার্থীরা সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, ব্যাবসায় শিক্ষা অনুষদ, কলা অনুষদ ও শর্ত সাপেক্ষে বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে বিভাগগুলোতে লেখাপড়া করার সুযোগ পাবেন।

‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।