এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে হিরো আলমের ভাস্কর্য


ঢাবি টাইমস
Published: 2018-12-04 19:50:41 BdST | Updated: 2018-12-12 03:30:54 BdST

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের প্রার্থী হতে গিয়ে বারবার হোঁচট খাচ্ছেন হিরো আলম খ্যাত আশরাফুল হোসেন আলম। তারপরেও থেমে নেই তিনি।

মনোনয়নপত্র বাতিলের পর নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন। শেষ পর্যন্ত হিরো আলম নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কি-না তা নিয়েও চলছে জল্পনা কল্পনা। এর মাঝে নিজের ভাস্কর্য দেখে চমকে গেলেন তিনি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগের এম এফ এ ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী উত্তম কুমার শর্মা তৈরি করছেন হিরো আলমের আবক্ষ ভাস্কর্য। ইতোমধ্যে ভাস্কর্যের কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। নিজের ভাস্কর্য দেখতে সরেজমিনে ঢাবির জগন্নাথ হলের জ্যোতির্ময় ভবনে শিক্ষার্থী উত্তম কুমারের সাথে আজ মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে দেখা করতে যান হিরো আলম।

সঙ্গে ছিলেন ডিজিটাল আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান সহ বেশ কয়েকজন গনমাধ্যমকর্মী। চোখের সামনে নিজের ভাস্কর্য দেখে চমকে ওঠেন আশরাফুল হোসেন আলম। আবেগে আপ্লত হন তিনি। হিরো আলমকে কাছে পেয়ে আনন্দে আত্মহারা ছিলেন শিক্ষার্থী উত্তম কুমার। জগন্নাথ হল চত্বরে হিরো আলমকে দেখতেই সেলফির হুড়োহুড়ি শুরু করে ঢাবির শিক্ষার্থীরা। এ সময় বেশ আনন্দিতও ছিলেন হিরো আলম।

ঢাবির চারুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগের শিক্ষার্থী উত্তম কুমার শর্মা বলেন, হিরো আলমের ভাস্কর্য নির্মাণ করে শুধু সম্মান ও ভালবাসাই প্রদর্শন নয়, সকল শিল্পী সমাজকেও শিল্পকর্ম নির্মাণের মাধ্যমে সম্মানিত করেছি। এই সরল সহজ মানুষটি (হিরো আলম) সাম্প্রতিক অসৎ ধান্দাবাজ স্বার্থপর রাজনীতির বিপরীতে এক স্বচ্চতার প্রতীক।

উত্তম কুমার জানান, নিজ আগ্রহে ভাস্কর্যটি তৈরির উদ্যোগ নিয়েছি। ভাস্কর্যটি কোথায় স্থাপন করা হবে, আদৌ স্থাপন করা হবে কি-না, তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি। তবে আপাতত জগন্নাথ হলে নিজের কাছেই ভাস্কর্যটি রাখবেন বলে জানান তিনি।

জগন্নাথ চত্বরে উপস্থিত একাধিক শিক্ষার্থী গনমাধ্যমকে বলেন, হিরো আলম সকলের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন, অবৈধ অর্থে আমীর হয়ে নিজেকে অনেক বড় বলে কল্পলোকের বাসিন্দা হওয়া যায়। কিন্তু একজন শিল্পীর ভালবাসা পেতে হলে তাকে প্রকৃত মানুষ হতে হয়। এ দেশের প্রকৃত মানুষের সমাজ প্রতিষ্ঠিত হোক।

হিরো আলম খ্যাত আশরাফুল হোসেন আলম জানান, সোমবার (৩ ডিসেম্বর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হিরো আলমের ভাস্কর্যের একটি ছবি ভাইরাল হয়। সেই ছবির সূত্র ধরে ভাস্কর্যের সন্ধান করতে থাকেন হিরো আলম নিজেই। মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) ফেসবুকের মাধ্যমেই ভাস্কর্যের সন্ধান পান তিনি। ওইদিন বিকেলেই নিজের ভাস্কর্য দেখতে সরেজমিনে জগন্নাথ হলে যান হিরো আলম। উত্তম কুমার শর্মা তৈরি করছেন আবক্ষ ভাস্কর্য। সে রাজবাড়ি জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার নারায়নপুর গ্রামের নিপেন্দ্রনাথ শর্মার ছেলে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগের এম এফ এ ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।