ডাকসুর পুনর্নির্বাচন চেয়ে অনশন চলছে


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-03-12 23:54:06 BdST | Updated: 2019-05-20 11:47:06 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় তফসিল ঘোষণার দাবিতে অনশন শুরু করেছেন চার শিক্ষার্থী। সেই সঙ্গে উপাচার্য, প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ নির্বাচনের সঙ্গে যুক্ত সবার পদত্যাগ দাবি করেছেন তাঁরা।

আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে তাঁরা অনশন শুরু করেন।

অনশন করা চার শিক্ষার্থী হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ, পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মো. মাইন উদ্দীন, দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য মণ্ডল এবং কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই) বিভাগের চতুর্থ বর্ষের তাওহীদ তানজিম।

তাঁরা দুটি দাবিতে অনশনে বসেছেন বলে জানান। এক. অবিলম্বে এই ডাকসু নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় তফসিল ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ও হল সংসদের সব পদে সুষ্ঠু পরিবেশে পুনর্নির্বাচন দিতে হবে। দুই. ১১ মার্চের ভোট ডাকাতির সাথে জড়িত প্রত্যেককে (যেমন : ভিসি, চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা, রিটার্নিং কর্মকর্তা) তফসিল ঘোষণার আগেই পদত্যাগ করতে হবে।

এই চারজনের মধ্যে ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ হলের শিক্ষার্থী শোয়েব মাহমুদ তাঁর লিখিত বক্তব্য সাংবাদিকদের কাছে পেশ করেন। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়েছে, ‘গত ১১ তারিখের ডাকসু নির্বাচন পুরোপুরিভাবেই একটি জালিয়াতির ও ভোট ডাকাতির নির্বাচন। এই ধরনের একটি জালিয়াতির নির্বাচন আমাদের সম্মানিত শিক্ষকরা আমাদের উপহার দিবেন সেটি আমাদের কল্পনাতীত। এই নির্বাচনের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কলংকিত হয়েছে, আমি শিক্ষার্থী হিসেবে লজ্জিত। আমি তাই নিজে ডিসিশন নিছি এই ভোটচুরির নির্বাচনকে বাতিল করে পুনরায় তফসিল ঘোষণা না করলে আমি আমরণ অনশন করে যাব।

এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে লাশের দরকার, আমি লাশ হতে চাই। সেই লাশ আন্দোলন বহন করে নিয়ে যাব একটি সুন্দর আগামীর দিকে।

আমি কারোর প্রতিনিধিত্ব করছি না, নিজ উদ্যোগে, নিজ আগ্রহে, নিজ সিদ্ধান্তে এখানে অনশনে বসেছি।’

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।