ছাদে উঠতে বাধা, চবির শাটল ট্রেন আটকে দিলো শিক্ষার্থীরা


CU
Published: 2019-09-05 21:38:39 BdST | Updated: 2019-12-06 10:04:11 BdST

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে শাটল ট্রেনের ছাদ ওঠা শিক্ষার্থীদের নামিয়ে দেয়ায় শাটল ট্রেন আটকে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। 

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ক্যাম্পাস থেকে শহরগামী দুপুর দেড়টার ট্রেন ছাড়ার পূর্বমূহুর্তে এ ঘটনা ঘটে। পরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে শাটলের ছাদে  ওঠতে দেয় কর্তৃপক্ষ। 

সূ্ত্রে জানা যায়, ট্রেনের ছাদে উঠে ভ্রমণ করলে, তাকে সর্বোচ্চ শাস্তি এক বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে বলে জানিয়েছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। যা গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর হয়েছে।

এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে এবং ছাদে ওঠা শিক্ষার্থীদের নামিয়ে দিতে  বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও রেলওয়ে পুলিশ দেড়টার ট্রেনে প্রচারনা চালায়। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে ট্রেনের দরজা ও ছাদ থেকে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দিলে ট্রেন আটকে দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থী। 

শিক্ষার্থীদের দাবি, ট্রেনে পর্যাপ্ত আসন না থাকায় ট্রেনের দরজায় ও ছাদে বসে যেতে হয়। কারন, অধিকাংশ সময় ট্রেনের ভেতরে দাঁড়ানোর জায়গাটুকুও থাকে না। তাই ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হয়। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) প্রণব মিত্র চৌধুরী বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করেই তাদেরকে ছাদ থেকে নামতে বলি। পরে শিক্ষার্থীরা ট্রেন আটকে দেয়। তাই আমরা বলেছি কোনো দূর্ঘটনা ঘটলে বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ এর দায়ভার নিবে না। 

তিনি আরও বলেন, শাটল ট্রেনে আসন সংকটের বিষয়টি আমরা অবগত আছি। রেলওয়ে কতৃপক্ষ একটা বগি কম দিচ্ছে। তাছাড়া মাঝেমধ্যে একটি মালবগিও দেখা যায়। কাজেই আমরা খুব দ্রুত তাদের সাথে বসবো। এবং বগি বাড়ানোর বিষয়ে কথা বলবো।

এ দিকে এবিষয়ে চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান ভূইঞাঁ বলেন, ছাদে ওঠার বিষয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের সম্প্রতি প্রকাশ করা শাস্তির বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে এবং নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের ছাদ থেকে নেমে যেতে বললে তারা শাটল ট্রেন আটকে দেয়।

তিনি আরও বলেন, ট্রেনের ছাদে ভ্রমন করা ঝুঁকিপূর্ণ। যেকোন মুহূর্তে ঘটতে পারে অপ্রীতিকর ঘটনা। তাই শিক্ষার্থীদের সচেতন হয়ে ট্রেনের ছাদে না ওঠা উচিত।