অস্থায়ী ক্যাম্পাসে শুরু হচ্ছে ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির কার্যক্রম


গাজীপুর
Published: 2019-09-05 22:47:26 BdST | Updated: 2019-12-06 08:44:56 BdST

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির কার্যক্রম। অস্থায়ী এ ক্যাম্পাসে দুটি অনুষদে মোট ১০০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য সুপারিশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) গঠিত কমিটির সদস্যরা। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তির অনুমোদন দিতে সুপারিশ করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ব্ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করতে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে দুটি ভবন ভাড়া করা হয়। সেখানে অস্থায়ীভাবে দুটি কোর্সে শিক্ষার্থী ভর্তি ও পাঠদান শুরু করার অনুমোদন দিতে ইউজিসিতে আবেদন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ওই আবেদনের ভিত্তিতে সম্প্রতি ইউজিসির সদস্য (বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়) অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগমকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সদস্যরা সরেজমিন পরিদর্শন করে ভাড়া ভবনে অস্থায়ী কার্যক্রম শুরুর প্রস্তাবসহ আটটি সুপারিশ করেন।

কমিটির সুপারিশে বলা হয়েছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈরের ২৬ হাজার ৬০০ বর্গফুট আয়তনের দুটি ভাড়া করা ভবনে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দেয়া যেতে পারে। প্রকৌশল অনুষদ এবং এ অনুষদের অধীনে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) প্রোগ্রাম বা কোর্স চালুর অনুমতিসহ ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি এবং শিক্ষা ও গবেষণা অনুষদের অধীনে এডুকেশন বিভাগে ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন আইসিটি ইন এডুকেশন প্রোগ্রাম খোলার অনুমতিসহ একই শিক্ষাবর্ষে সর্বোচ্চ ৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বলেছে কমিটি।

বর্তমানে আটজন অনুমোদিত শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হয়েছে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে। নতুন করে আরও তিনজন অধ্যাপক ও সহযোগী অধ্যাপক নিয়োগের জন্য সুপারিশ করেছেন কমিটির সদস্যরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউজিসির সদস্য (বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়) অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগম বলেন, চলতি বছর থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির একাডেমিক কার্যক্রম শুরু করতে আমরা সুপারিশ করেছি। সে ভিত্তিতে পাবলিক এ বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠদান কার্যক্রম শুরু করা হবে। প্রথম পর্যায়ে দুটি অনুষদে মোট ১০০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি অনুমোদিত দেয়া হতে পারে বলেও জানান তিনি