দখলদারিত্বের অবসান ও বৈধ সিটের দাবি ঢাবি শিক্ষার্থীদের


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-10-17 19:17:50 BdST | Updated: 2019-11-18 00:52:06 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হলগুলোতে সকল ধরনের দখলদারিত্বের অবসান ঘটিয়ে বৈধ সিট নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুর একটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এক মানববন্ধনে এই দাবি জানান তারা। ‘বৈধ সিট আমার অধিকার’ ব্যানারে এই মানববন্ধনের আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী।

মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সজিব বলেন, ‘বৈধ সিট ন্যায্য অধিকার। প্রক্টর, ভিসি শিক্ষকের চেয়ে রাজনৈতিক কর্মীর ভুমিকা বেশি পালন করেন।ঢাবিকে পুতুলে পরিণত করেছেন তারা। প্রক্টর, ভিসি সব কিছু দেখেও লেজুড়বৃত্তিতে নিমিত্ত।’

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী নাহিদ ইসলাম বলেন, ‘আবরার হত্যাকান্ড বুয়েটের কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এটি পুরো বাংলাদেশের নির্যাতনের বহিঃপ্রকাশ। আবরার হত্যা হাফিজ, আবু বক্কর হত্যারই প্রতিফলন। প্রোগ্রামে জনবল পাবেনা বলেই ছাত্রলীগ গেস্টরুম, গণরুম বন্ধ করতে চায় না।’

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী ইশরাতুল জাহান নিশি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে এসেছি স্বাধীনচেতা মনোভাব নিয়ে বেড়ে উঠতে। কিন্তু সেই পরিবাশ পাচ্ছি কই? আমরা আমাদের অধিকার পাচ্ছি না। ভয়ে কথা বলতে পারিনা। ব্যক্তিস্বাধীনতায় কেন বাধাগ্রস্থ হব? বুয়েটে যদি ছাত্ররাজনীতি বন্ধ করতে পারে তাহলে আমরা কেন আমাদের অধিকার বৈধ সিট পাব না।’

ইংরেজি বিভাগের প্রথম শিক্ষার্থী শাহজাহান তানিম বছরের শুরুতে তার হলে থাকার তিক্ত অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে বলেন, ‘একটি সন্ত্রাসী ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ নাকি শেখাবে আমাদের ম্যানার? যারা হত্যা আর খুনের রাজনীতি করে বেড়ায়, যারা গুলি করে মানুষ মারে, যারা রড দিয়ে পিটিয়ে মানুষ মারে, যারা হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দমিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে, তারা শেখাবে ম্যানার? তারা ম্যানারের নাম করে যা শেখাবে তা হচ্ছে কিভাবে মানুষ মারতে হয়, কিভাবে হত্যা করতে হয়। এসময় তিনি আবাসিক হলগুলোতে বৈধ সিট নিশ্চিতের জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে আন্দোলন করার আহ্বান জানান।

  • মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ৬ দফা দাবি তুলে ধরেন। তাদের দাবি গুলো হলো;
    ১. প্রথম বর্ষ থেকে প্রশাসল কর্তৃক বৈধ সিট দিতে হবে
    ২. গেস্ট রুম নামে সকল প্রকার টর্চার সেল বন্ধ করতে হবে
    ৩. অবৈধভাবে হল দখল কারীদেরকে অনতিবিলম্বে হল ত্যাগ করাতে হবে
    ৪.পলিটিক্যাল গণরুম বাতিল করতে হবে
    ৫. হলগুলোতে সিট বরাদ্দে পলিটিক্যাল হস্তক্ষেপ থাকবেনা এবং
    ৬. পলিটিক্যাল রুমের নামে রুম দখল বন্ধ করতে হবে