গভীর রাতে বেরোবি’র হলে পুলিশি তল্লাশি


টাইমস ডেস্ক
Published: 2019-11-05 21:54:49 BdST | Updated: 2019-11-23 08:53:39 BdST

হঠাৎ গভীর রাতে রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের দুটি আবাসিক হলের কক্ষে কক্ষে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। কোন ঘোষনা ছাড়াই এমন তল্লাশি পুলিশের পক্ষ থেকে রুটিন ওয়ার্ক দাবী করা হয়।

তবে তল্লাশির নামে হয়রানীর অভিযোগ করে ছাত্ররা বলছে, অনার্স ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আবাসিক হলগুলোতে থাকতে দেয়ার দাবি জানিয়ে ছাত্রলীগ ও সাধারণ ছাত্ররা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টার যে আল্টিমেটাম দিয়েছে তারই প্রেক্ষিতে এই পুলিশি অভিযান।

মঙ্গলবার রাত দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল এবং শহীদ মুখতার ইলাহী হলের চারপাশ ঘিরে ফেলে পুলিশ। এরপর হলের ভেতরে ঢুকে ঘুমন্ত ছাত্রদের ডেকে প্রতিটি কক্ষ তল্লাশি করে তারা। রাত দেড়টা থেকে তিনটা পর্যন্ত তল্লাশি চলাকালে কোন কক্ষ থেকেই অবৈধ কোন অস্ত্র কিংবা বহিরাগত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

গভীর রাতে ছাত্রদের হলে ঢুকে এমন তল্লাশির ঘটনায় ছাত্ররা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। তবে পুলিশ জানিয়েছে এটি তাদের নিয়মিত কাজের অংশ।

জানা যায়, অভিযানের আগাম তথ্য ছড়িয়ে পড়ায় রাত দশটার আগেই হল থেকে সটকে পড়ে অনাবাসিক শিক্ষার্থীরা। এরপরও কিছু অনাবাসিক শিক্ষার্থীকে হলে পাওয়া গেলেও তাদেরকে বের করে দেয়া হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রভোস্ট কমিটির সদস্য সচিব তাবিউর রহমান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখতেই গতরাতে অভিযান চালানো হয়েছে।’

গভীর রাতে অভিযান পরিচালনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিগত সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে সাধারণত রাতেই অভিযান চালানো হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সামনে ভর্তি পরীক্ষা, তাই হলে যাতে কোনো বহিরাগত অবস্থান করতে না পারে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতেই অভিযান চালানো হয়েছে।’

এ বিষয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শহীদুল্লাহ কাওসার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই বহিরাগত ছাত্র আছে কিনা এটা আমরা হলগুলোতে চেক করেছি। সারাদেশেই এ কাজটি হচ্ছে।’

জেডএস/ ০৫ নভেম্বর ২০১৯