ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নাকি যানজট বিশ্ববিদ্যালয়?


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-12-07 05:52:40 BdST | Updated: 2020-09-28 17:54:49 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে দিন দিন যানজট সমস্যা বেড়েই চলেছে। কোন নিয়ম কানুন না মেনেই চলছে বহিরাগত যানবাহন। বিশেষ করে বৃহস্পতি, শুক্র এবং শনিবার এই তিনদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সবচেয়ে বেশি ভোগান্তি পোহাতে হয়।

ডাকসু নির্বাচনের পূর্বে নির্বাচিত ডাকসু নেতাদের অনেকের ইশতেহারে যানজট সমস্যার সমাধানের কথা থাকলেও এর কোন সমাধান করতে পারেনি ডাকসু’র নেতারা এবং এ বিষয়ে প্রায় উদাস বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের ভিতর দিয়ে যেহেতু পাবলিক ট্রান্সপোর্ট যাতায়াত করে সে ক্ষেত্রে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের জন্য নির্দিষ্ট লোকবল নিয়োগ দেয়া প্রয়োজন। অথবা পাবলিক ট্রান্সপোর্ট যাতায়াত বন্ধ করা উচিত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রবেশপথ রয়েছে মোট ৫টি। তার মধ্যে শাহবাগ, নীলক্ষেত, দোয়েল চত্বর-হাইকোর্ট, চানখারপুল এবং বকশিবাজার উল্লেখযোগ্য। প্রতিটা প্রবেশপথে প্রতিদিন সুদীর্ঘ যানবাহনের সারি সারি লাইনের দেখা মেলে। অনেক সময় উল্টো পথে চলে এসকল যানবাহন। ফলে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

শাহবাগ হাইকোর্ট দোয়েল চত্বরের চিত্রও ভয়াবহ।এতে শিক্ষার্থীরা যে ধরনের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে তা কোন ভাবেই শিক্ষার সুষম পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে মনে করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

সার্জেন্ট সহুরুল হক হলের সামনে হল সংসদের উদ্যোগে সংরক্ষিত রাস্তা রাখা হলেও কোন আইন না মেনেই এই সংরক্ষিত রাস্তায় চলাচল করছে বহিরাগত মোটর বাইক, রিক্সা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী দেওয়ান সাবাবের বলেন, “নীলক্ষেত-টিএসসি রোডে আমি কখনো জ্যাম ছাড়া দেখিনি। সকালে জ্যাম, দুপুরে জ্যাম, বিকালে জ্যাম আর সন্ধ্যার কথা তো বলাই লাগে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে মাঝে মাঝে চিড়িয়াখানা মনে হয়। যেখানে আমরা খাঁচায় বন্দি প্রাণী।”

এই সময় তিনি ডাকসু’র ছাত্রনেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, যানজট নিরসনে ডাকসু নেতৃবৃন্দদের অতিদ্রুত শিক্ষার্থীবান্ধব ভূমিকায় দেখার আশাবাদ ও জোর দাবি জানাই। যানজটমুক্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উপহারের মাধ্যমে ডাকসু ২০১৯ এর সাফল্য আরো এক ধাপ এগিয়ে যাবে বলে আমি বিশ্বাস ধারণ করি।