রাবিতে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২ জন আহত


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2018-02-19 05:17:40 BdST | Updated: 2018-12-10 09:27:38 BdST

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের পূর্ব শত্রুতার জেরে ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন অনিক মাহমুদ বনি ও মিঠু নামের দুই ছাত্রলীগ কর্মী। আহত দুই জন প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পায়ে ছুরিকাঘাত করার ঘটনায় সবুজ ও তুষার নামের দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৪ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আগামী ২২ তারিখে রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমনকে কেন্দ্র করে প্রচার মিছিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল ছাত্রলীগের সদস্য বনি। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মো. রাসেল সেখানে যায়। পূর্ব শত্রুতার জেরধরে এক পর্যায়ে বনির সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পরে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বনিকে রাসেল আঘাত করে। এরপরে রাসেল তার সহযোগী স্থানীয় সবুজ, তুষারসহ কয়েকজনকে নিয়ে তার উপর আক্রমণ করে। এতে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে গেলে বনি ও মিঠু ছুরিকাঘাতে আহত হয়। এরপর তাদের উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত দু‘জনই হাসপাতালের ৫ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত অনিক মাহমুদ বনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সদস্য এবং মিঠু বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মির্জাপুর এলাকার স্থানীয় ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত বলে জানা যায়। আটক হওয়া সবুজ ও তুষার দুইজনই বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী এলাকা বিনোদপুরের বাসিন্দা এবং রাসেলের অনুসারী।

আহত বনি চ্যানেল আই অনলাইনকে জানান, আমি প্রধানমন্ত্রীর প্রচার মিছিল করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। ওই সময় রাসেল কয়েকজন শিবিরের ক্যাডারদের নিয়ে আমার উপর হামলা করে। তারা আমার পায়ের পাঁচ জায়গায় ছুরিকাঘাত করে।

তবে রাসেল ছুরিকাঘাত করার কথা অস্বীকার করে বলেন আমাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়েছে ঠিকই তবে কে বা কারা তাদেও ছুরিকাঘাত করেছে তা আমি জানিনা।

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, আমি এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিনা। যতটুকু জানি এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয় ছিল।

মতিহার থানার ওসি মাহবুব আলম জানান, সংঘর্ষের খবর শুনে আমরা ঘটনাস্থলে আসি। পরে ঘটনার সূত্রপাত ধরে দু‘জনকে আটক করেছি। এখন পরিস্থিতি শান্ত আছে।

এইচএম/ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।