এশা শুধু ছাত্রত্ব ফিরে পাবে না বরং সম্মানিত হবে: ঢাবি উপাচার্য


টাইমস ডেস্ক
Published: 2018-04-13 23:14:51 BdST | Updated: 2018-09-19 00:27:23 BdST

ছাত্রী নির্যাতনের ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) থেকে বহিষ্কৃত কবি সুফিয়া কামাল হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইফফাত জাহান এশা শুধু ছাত্রত্ব ফিরে পাবে না বরং সম্মানিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান।

শুক্রবার (১৩ এপ্রিল) নিজ কার্যালয়ে সংবাদভিত্তিক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ডিবিসির কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি।

আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এশা শুধু ছাত্রত্ব ফিরে পাবে না বরং সম্মানিত হবে এবং এটি উচিত হবে। আমরা তো কোনো শিক্ষার্থীর প্রতি অবিচার করতে পারি না। ওই মেয়েটির তরফ থেকে আমরা যতটুকু শুনেছি, ওই মেয়ে একটি দরজায় পা দিয়ে আঘাত হানার ফলে তার পা কেটে গেছে।’

আন্দোলন নিয়ে যারা ফেসবুকে মিথ্যা খবর ছড়িয়েছে, তাদের উদ্দেশ্য খতিয়ে দেখতে হবে উল্লেখ করে উপাচার্য বলেন, ‘গুজবের প্রথম যিনি সূচনা করলেন, আমার মনে হয় সেখানে আমাদের ব্যবস্থা নেওয়া খুবই জরুরি। প্রথম যে গুজব ছড়াল, কেন সে এটি করল, কোনো অসৎ উদ্দেশ্যে সে এটি করল।’

এর আগে কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাওয়ায় ১০ এপ্রিল, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে সুফিয়া কামাল হলের তিন ছাত্রীকে ইফফাত জাহান এশাকে মারধর করেন বলে অভিযোগ উঠে। এই খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে। আহত ছাত্রীর রক্তাক্ত পা, স্যান্ডেল ও ফ্লোরের বিভিন্ন ছবি ফেসবুকে শেয়ার দিয়ে অনেকেই এর প্রতিবাদ জানান এবং বিক্ষোভ করেন। বিক্ষুব্ধ ছাত্রীরা এশাকে অবরুদ্ধ করেন।

ছাত্রীরা বিক্ষোভ করলে রাত ১টার দিকে হলে যান প্রাধ্যক্ষ সাবিকা রেজওয়ানা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর একেএম গোলাম রাব্বানী। এর দেড় ঘণ্টা পর প্রক্টর জানান, এশাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ।

রাতেই কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে নির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্তে ইফফাত জাহান এশাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। অবশ্য শুক্রবার ইফফাত জাহান এশার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে তাকে স্বপদে বহাল রাখে সংগঠনটি।

চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে ৮ এপ্রিল, রবিবার শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। এই আন্দোলনের বিরোধিতা করে আসছিল ছাত্রলীগ। ওই দিন রাতে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও আন্দোলনকারীদের ওপর চড়াও হন। আন্দোলনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশির ভাগই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের। এই আন্দোলনে অংশ নেওয়াতেই সুফিয়া কামাল হলের কয়েক ছাত্রীকে মারধর করেন ইফফাত জাহান এশা, এমন অভিযোগ ছাত্রীদের।

https://www.facebook.com/pg/DBCNews24x7/videos/

এসজে/ ১৩ এপ্রিল ২০১৮

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।