নিজঘরে নামাজ-প্রার্থনা, জুমায় সর্বোচ্চ ১০ জন


টাইমস ডেস্ক
Published: 2020-04-06 17:00:10 BdST | Updated: 2020-05-26 23:44:46 BdST

দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ঘরে বসে নামাজ পড়ার নির্দেশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। মসজিদে ওয়াক্তের জামাতের ক্ষেত্রে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম ছাড়া অন্য সব মুসল্লি নিজ নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায় করবেন। এছাড়া জুমার জামায়াতে ১০ জনের বেশি শরিক হতে পারবেন না।

সোমবার (০৬ এপ্রিল) দুপুরে এক জরুরি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এসব নির্দেশনা জারি করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। একইসঙ্গে অন্যান্য ধর্মের অনুসারীদেরও উপাসনালয়ে সমবেত না হয়ে নিজ নিজ বাসস্থানে উপাসনা করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সারা দেশে কোনো ধরনের ওয়াজ মাহফিল, তাফসির মাহফিল, তাবলিগী তালীম বা মিলাদ মাহফিলের আয়োজন না করার নির্দেশও দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি নির্দেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

বিজ্ঞপ্তিতে যেসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে-

# মসজিদের ক্ষেত্রে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খাদেম ব্যতীত অন্য সকল মুসল্লিকে সরকারের পক্ষ থেকে নিজ নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায় এবং জুমার জামাতে অংশগ্রহণ এর পরিবর্তে জোহরের নামাজ আদায়ের নির্দেশ দেয়া যাচ্ছে।

# মসজিদে জামাত চালু রাখার প্রয়োজন হলে প্রতি ওয়াক্তে খতিব, ইমাম, মুয়াজ্জিন, খাদেমসহ সর্বোচ্চ পাঁচজন এবং জুমার জামাতে সর্বোচ্চ ১০ জন শরিক হতে পারবেন।

# অন্যান্য ধর্মের অনুসারীদের উপাসনালয়ের সমবেত না হয়ে নিজ নিজ বাসায় উপাসনা করার নির্দেশ দেয়া যাচ্ছে।

# সারাদেশে কোথাও এখন ওয়াজ-মাহফিল, তাফসির মাহফিল, তাবলীগ তালিম বা মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা যাবে না। সবাই ব্যক্তিগতভাবে জিকির ও দোয়ার মাধ্যমে বিপদমুক্তির প্রার্থনা করবেন।

# অন্যান্য ধর্মের অনুসারীরা এই সময়ে কোনো ধর্মীয় বা সামাজিক আচার-অনুষ্ঠানে সমবেত হতে পারবেন না।

নিজ নিজ বাসস্থানে নামাজ আদায়ের নির্দেশ