বিশুদ্ধ পানি-খাবারের সংকট চরমে

পানিতে ভাসছে নতুন এলাকা


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2017-08-17 06:49:27 BdST | Updated: 2018-10-20 22:13:40 BdST

নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে জামালপুর, টাঙ্গাইলসহ নওগাঁ, নাটোর, বগুড়ার আরো নতুন নতুন এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে উত্তরবঙ্গের দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাটে বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। তবে অপরিবর্তিত আছে গাইবান্ধা ও নীলফামারীর বন্যা পরিস্থিতি। বিশুদ্ধ পানি ও খাবার সংকটে চরম দুর্ভোগের মধ্যে আছে বন্যাদুর্গতরা। খবর সময় সংবাদের।

জামালপুর: জামালপুরে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে নতুন করে মাদারগঞ্জের ৩০টি ও সরিষাবাড়ির ১০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। গবাদি পশু নিয়ে বন্যা দুর্গত মানুষ উঁচু সড়কে আশ্রয় নিয়েছেন। এদিকে পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সকালে সরিষাবাড়ি-তারাকান্দি রেলপথ বন্ধ ঘোষণা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। লাইনের ওপর পানি উঠে যাওয়ায় গত ৩দিন ধরে বন্ধ আছে জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ রেলপথ।

টাঙ্গাইল: যমুনা নদীর পানি বাড়ায়, টাঙ্গাইলে ৫ উপজেলার লক্ষাধিক মানুষ বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। বসতবাড়িতে পানি উঠে যাওয়ায় গবাদি পশু নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন বানভাসি মানুষেরা। ভেসে গেছে কয়েক হাজার হেক্টর ফসলি জমি। দুর্গতদের অভিযোগ, পর্যাপ্ত ত্রাণ সহযোগিতা পাচ্ছেন না তারা।

নওগাঁ: নওগাঁর ধামইরহাটে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে নতুন করে আরো ৫০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন ধামইরহাট, রানীনগর, মান্দাসহ ৬টি উপজেলার ৫ লক্ষাধিক মানুষ। গ্রামবাসী নিজ উদ্যোগে বালির বস্তা ফেলে বাঁধের ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করছেন।বন্যার কারণে জেলার ২শ ৬৯টি সরকারি বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

নীলফামারী: নীলফামারীতে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলেও, সৈয়দপুর উপজেলার প্রায় ৭০টি গ্রাম এখনো প্লাবিত। দুর্গত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও খাবারের তীব্র সংকট। এদিকে সৈয়দপুর পৌর এলাকার দহলা নদীর ব্রিজটি বন্যার কারণে ঝুঁকির মুখে পড়েছে। ভারি যানবাহন চলাচলে যে কোনো সময় ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়তে পারে বলে আশংকা।

এছাড়া দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম, সুনামগঞ্জে বন্যার পানি কমতে শুরু করেছে। তবে ঘরবাড়ি থেকে পানি নেমে না যাওয়ায় দুর্ভোগ কমেনি দুর্যোগ মানুষের। বিশুদ্ধ পানি ও খাবারের তীব্র সংকটে দিন কাটছে তাদের।

আরএম/ ১৭ আগস্ট ২০১৭

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।