সোফিয়া থেকে দ্রুত কথা বলে বাংলাদেশি তরুণদের তৈরি 'বন্ধু' রোবট


টাইমস ডেস্ক
Published: 2017-12-09 11:37:35 BdST | Updated: 2018-09-19 00:27:36 BdST

সোফিয়ার মতো কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট 'বন্ধু' তৈরি করেছেন বাংলাদেশি তরুণ বিজ্ঞানীরা। নতুন এই রোবটটি কথা বলতে পারে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায়। এমনকি প্রশ্নের উত্তর দেয়ার ক্ষেত্রে সোফিয়ার চেয়েও কম সময় নেয় সে। ও' লেভেল পড়ুয়া তিন বন্ধুর প্রতিষ্ঠান-ইনফরমেশন টেকনোলজি ভিলেজ নিজ উদ্যোগে তৈরি করেছেন 'বন্ধু' নামের এই রোবট।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭ তে তথ্যপ্রযুক্তির বিস্ময়কর আবিষ্কার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন রোবট সোফিয়াকে নিয়ে যখন উচ্ছ্বাস। ঠিক তার পাশের ছাউনিতে ও'লেভেল পড়ুয়া তিন শিক্ষার্থী সোফিয়ার মত কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার রোবট নিয়ে মেলায় অংশ নিতে এসেছেন। নাজমুস সাকিব, সাইফুর রহমান, জান্নাতুল নাইম অর্ণব তিন বন্ধুর আবিষ্কার, বিস্ময়কর এই রোবটটির নাম দিয়েছেন 'বন্ধু'।

রোবটটি প্রশ্ন গ্রহণ ও উত্তর দেয় সোফিয়ার চেয়েও দ্রুত সময়ে। শুধু তাই নয় 'বন্ধু' বাংলা ও ইংরেজি দুটি ভাষায় উত্তর দিতে সক্ষম। এছাড়া এর সামনে একটি মুঠোফোন রয়েছে। যার মাধ্যমে খুব সহজেই প্রশ্নকর্তার ছবি নিতে পারে সে।

রোবটটির নির্মাতা নাজমুস সাকিব বলেন, 'বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে পারে, উত্তরও দিতে পারে। প্রশ্ন শুনে বুঝতে পারে। এছাড়া তার কাছে কোন তথ্য জানতে চাওয়া হলে সেটারও উত্তর দিতে পারে। সেই প্রশ্নের উত্তর তার কাছে না থাকলে সে গুগলে সার্চ করে জেনে উত্তরটি দেয়।

প্রতিটি সাফল্যে থাকে অনুপ্রেরণা, থাকে গল্পের পেছনের গল্প। আবিষ্কারক তিন বন্ধুর শুরুর গল্পটা একটু অন্য রকম। চালকবিহীন গাড়ির কথা শুনেই তাদের নতুন কিছু করার ভুত মাথায় চাপে। এরপর দুই বছর চেষ্টা। এরমধ্যে বছর দেড়েক আগে সোফিয়ার আবিষ্কার তাদের উৎসাহ আরো বাড়িয়ে দেয়। অবশেষে সাফল্য এলো। নিজ উদ্যোগে তৈরি করে ফেললেন 'বন্ধু' । বন্ধুকে তৈরি করতে ব্যয় হয়েছে মাত্র ২৫ হাজার টাকা। আবিষ্কারকরা জানান, পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এই রোবটটিকেই আরো উন্নত করা সম্ভব হবে।

নাজমুস সাকিব আরও বলেন, এইটিকে আমরা আরো উন্নত করতে সক্ষম। রোবটটা প্রতি নিয়ত নতুন নতুন বিষয় শিখছে চারপাশ থেকে। সেই নিজেই শিখছে।

সাকিব আরও বলেন, সোফিয়া মতো এইটাকে তৈরি করতে সক্ষম হবো। তবে এর জন্য আমাদের কিছু সাহায্য প্রয়োজন।

দর্শনার্থীরা জানান, আমাদের খুবই ভাল লাগছে যে এটা বাংলাদেশের তৈরি। সবচেয়ে ভাল লাগার বিষয় যে রোবটটি বাংলায় কথা বলতে পারে।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে নিজ উদ্যোগে তরুণদের আবিষ্কারগুলোর মধ্যে 'বন্ধু' একটি। এমন সব আবিষ্কার যেন শুধু আলোচনার ধুলোয় মিলিয়ে না যায় সেজন্য বিজ্ঞানের এই বিস্ময়ের যুগে সরকারি উদ্যোগে মেধাকে কাজে লাগানোর দাবি ক্ষুদে আবিষ্কারকদের। সূত্র: সময় সংবাদ।

এসএম/ ০৯ ডিসেম্বর ২০১৭

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।