যেকোন মুহূর্তে আসছে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-10-31 20:09:33 BdST | Updated: 2018-11-18 02:25:44 BdST

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে মাঠ দখলের লড়াইয়ে নামার হুমকি দিয়েছে সরকার বিরোধী বিএনপি-জামায়াতের ছাত্র সংগঠন ছাত্রদল ও ছাত্র শিবির। তাদের অশুভ চক্রান্ত রুখতে ছাত্রলীগকে কঠোরভাবে মাঠে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অভিভাবক শেখ হাসিনা। তার নির্দেশেই খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবেন সংগঠনটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। সম্প্রতি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির বিষয়ে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে গেলে দুই নেতাকে তারাতারি কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার নির্দেশ দেন তিনি।

ছাত্রলীগের সংশ্লিষ্ট সূত্র করেছে, গত ২ দিন ধরে ছাত্রলীগের সভাপতি শোভন ও সাধারণ সম্পাদক রাব্বানী ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার লক্ষ্যে কয়েকদফা বৈঠক করেছেন। সর্বশেষ মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বাসায় এ নিয়ে কয়েক ঘন্টা ব্যাপী বৈঠক হয়েছে দুজনের মধ্যে। সেখানে প্রথমে প্রস্তুতকৃত ১০১ সদস্যের তালিকাকে ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট করা হয়েছে।

একাধিক বিশস্ত সূত্র জানিয়েছে, ছাত্রলীগের এবারের কমিটি ছোট করার পক্ষে ছিলেন সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। কিন্তু সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী চান সবাইকে নিয়ে বড় করেই ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে। এক্ষেত্রে গতবার সাইফুর রহমান সোহাগ এবং এস এম জাকির হোসাইনের নেতৃত্বাধীন পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদবঞ্চিতদের মূল্যায়ন করা হবে এ কথা নিশ্চিত করেছেন। এক্ষেত্রে যাদের বয়স একটু বেশি হয়েছে তাদেরও বিবেচনায় আনা হচ্ছে। বিশেষ করে তাদের সহ-সভাপতি পদগুলোতে ঠাঁই দেয়া হতে পারে। এমন সহ-সভাপতির সংখ্যা হতে পারে ৬ জন। মোট সহ-সভাপতির সংখ্যা হতে পারে ৩৫ জন।

এছাড়া গতবারের কেন্দ্রীয় কমিটিতে যারা আদর্শিকভাবে শেখ হাসিনার রাজনীতি করেছেন এবং কোটা সংস্কার আন্দোলন থেকে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে যারা সংগঠনের পক্ষে কাজ করেছেন। বিশেষ করে অনলাইনে গুজব প্রতিরোধে যারা সক্রিয় ছিলেন তাদের বিশেষভাবে মূল্যায়ণ করা হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে বাছাই করে তাদের গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখা হবে বলে জানা গেছে। তাদের জন্য যুগ্মা সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বিবেচনা করা হয়েছে।

নারীদের ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু থাকছে এবারের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ পদে ত্যাগী, পরিশ্রমী ও ক্লিন ইমেজের নারী নেতৃত্ব দেখা যাবে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে। সর্বোপরি, ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ত্যাগী, মেধাবী ও ক্লিন ইমেজের ছাত্রলীগের নেতারা ঠাঁই পাবেন। এক্ষেত্রে ছাত্রদল-শিবিরের কোনো অনুপ্রবেশকারী যেন ঠাঁই না পায় সেদিকে লক্ষ্য রাখা হচ্ছে বিশেষ করে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।