নুর শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন ছিনতাই করেছে: রাব্বানী


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-03-11 20:23:58 BdST | Updated: 2019-05-20 11:41:15 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে রোকেয়া হল থেকে ‘ব্যালট ছিনতাইয়ে’র মাধ্যমে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন ছিনতাই করেছে বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

তিনি বলেন, যা ঘটেছে তা কোনোভাবেই কাম্য ছিল না। ডাকসু নিয়ে সবার অনেক স্বপ্ন ছিল। আমরা অনেক শ্রম দিয়েছিল ব্যালট ছিনতাইয়ের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের সেই স্বপ্ন ছিনতাই হয়েছে। নুর হচ্ছে সেই ছিনতাইকারী।

সোমবার (১১ মার্চ) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ডাকসু নির্বাচনে ছাত্রলীগের প্যানেল থেকে সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে প্রার্থী রাব্বানী বলেন, রোকেয়া হলে ফাঁকা ব্যালট পাওয়া গেছে। আপনারা সবাই জানেন, আপনারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবাই দেখেছেন কিভাবে ব্যালট ছিনতাই হয়েছে। ওই ফাঁকা ব্যালট ছিল, নুর নিজে সেখানে ছিল। সে নিজেও পরীক্ষা করে দেখেছে। তখন ধরা খাওয়ার ভয়ে সে আহত হওয়ার ভান ধরে।

তিনি বলেন, ল্যাবএইডের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা জানিয়েছেন, নুর ডিহাইড্রেশনে ভুগছে। সে কারণে মাথা ঘুরে পড়ে গেছে। তার গায়ে কেউ নখের আঁচড়ও দেয়নি। এখন আহত হওয়ার নাটক করছে।

ছাত্রলীগের শীর্ষ এই নেতা আরও বলেন, আসলে ছাত্রলীগ ১০ বছর যেভাবে ক্যাম্পাসে আছে, তাতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এই ১০ বছরে ক্যাম্পাসে কোনো গুলি চলেনি, ককটেল বিস্ফোরণ হয়নি, কোনো ক্লাস সাসপেন্ড হয়নি। কিন্তু ছাত্রলীগের জনপ্রিয়তাকে ভয় পায় তারা। তাই একজোট হয়েছে। রোববার রাতেই ছাত্র ইউনিয়নের লিটন নন্দী, কোটা আন্দোলনের নুর, ছাত্রদলের অনিক একজোট হয়ে ষড়যন্ত্র করেছে। আজ তার মঞ্চায়ন করেছে।

রোকেয়া হলের ‘ব্যালট ছিনতাই’য়ের ঘটনায় এরই মধ্যে মামলা হয়ে থাকতে পারে বলেও জানান রাব্বানী। তিনি বলেন, ব্যালট ছিনতাইয়ের ঘটনায় এরই মধ্যে হয়তো শিক্ষার্থীরা মামলা করে ফেলেছে। কারণ ব্যালট ছিনতাইয়ের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ভোটের অধিকার কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা চলছে।

এদিকে, সংবাদ সম্মেলনে নতুন করে ডাকসু নির্বাচন আয়োজনে চার প্যানেলের যৌথ দাবিতে হাস্যকর অভিহিত করেছেন ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনো সিদ্ধান্ত নিলে তা মেনে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।