ডাকসুর ইতিহাসে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে এজিএস নির্বাচিত সাদ্দাম


ঢাবি টাইমস
Published: 2019-03-12 18:05:57 BdST | Updated: 2019-03-21 22:41:48 BdST

ইতিহাসে সর্বাধিক ভোট পেয়ে ডাকসুর এজিএজ নির্বাচিত হয়েছেন ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেইন। তিনি ১৫৩০১টি ভোট পেয়ে ইতিহাস গড়েছেন। যেখানে ১১০৬২ ভোট পেয়েই ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন নুর। ডাকসুর আর কোন পদেই এত পরিমাণ ভোট পড়েনি।     

এজিএস পিদে সাদ্দামের নিকতম প্রতিদ্বন্দী কোটা আন্দোলনের নেতা  ফারুক হোসেন পেয়েছেন ৫৮৯৬।

অসাধারণ বাকপটুতা, নম্র আচরণ, উপস্থিতবুদ্ধি  এবং ছাত্র অধিকার নিয়ে উচ্চ আওয়াজ তার জনপ্রিয়তার মূল কারন। কাব্যিক শব্দচয়ন আর যৌক্তিক বিশ্লেষণে তিনি একজন বিতার্কিককেও হার মানাবেন।

নির্বাচনের সময় শত শত ব্যানারের ভীড়ে তার ব্যানার কিংবা লিফলেট খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছিলনা। কিন্তু তিনি যখন ভোটের সময় বিভিন্ন হল ঘুরেছেন শিক্ষার্থীরা তখন তার দিকে বিমোহিত নজরে তাকিয়েছিলেন।   

ছাত্রলীগ সমর্থিত সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদ প্যানেল থেকে ডাকসুতে এজিএস পদে মনোনয়ন নিয়েছিলেন সাদ্দাম হোসেইন। তিনি নিজের চেয়ে শোভন ও রাব্বানীর প্রচারণায় সময় বেশি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগ কর্মীরা।

ঢাবির সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে তার রয়েছে অন্যরকম গ্রহণযোগ্যতা । তিনি সবার সাথে হাসিমুখে কথা বলেন, বিপদে সহায়তা করেন। 

আর এসব কারনেই তিনি সর্বাধিক ভোট পেয়েছেন, বলছেন বিশ্লেষকরা। 

একজন ভোটার বলেন, “ডাকসু প্রার্থী হিসেবে যাদের চিনতাম, তাদের মধ্যে সবচেয়ে যোগ্য মনে হয়েছে সাদ্দাম হুসেইনকে। অসাধারণ বাকপটুতা আর উপস্থিতবুদ্ধিতে পারদর্শীতায় সে অতুলনীয়।“

রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যেকোন দিক বিবেচনায় একজন ভালো ছাত্র নেতাকে এজিএস হিসেবে বেছে নিয়েছেন। যার শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করার সৃজনশীল চিন্তা রয়েছে। ভবিষ্যতে তিনি ছাত্র রাজনীতির আরো গুরুত্বপূর্ণ জায়গা পাবেন বলে তাদের ধারণা।   

''একজন ছাত্র নেতা যে এতো সুন্দরভাবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে মিশতে পারে, তা আমি তার সাথে সাক্ষাৎ না করলে জানতামই না''-বললেন আশিকুর রহমান নামে একজন শিক্ষার্থী।

তিনি বলেন, ''নির্বাচনের প্যানলে ঘোষণার পরই আমি সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছি অন্য ভোটগুলি যদি নাও দেই  সাদ্দামকে ভোট দিতে হলেও কেন্দ্রে যাব। আর সেই ভোট আমি প্রয়োগ করেছি''

প্রায় একইরকম অনুভূতি অধিকাংশ শিক্ষার্থীর।   

সাদ্দাম হোসেইনের জনপ্রিয়তা ক্যাম্পাসে অন্য সবার কাছে যেমন দৃশ্যমান, তেমনি নারী শিক্ষার্থীদের কাছেও  তা উল্লেখযোগ্য। সুন্দর মন-সুদর্শন আর যোগ্যতার বিচারে সাদ্দাম হসেইনের জনপ্রিয়তা নারী হলগুলোতে চোখে পড়ার মত।

হাবিব খান নামে এক ছাত্র বলেন, ''সাদ্দাম হুসাইনের কিছু উদ্যোগ চোখে পড়ার মতো। আর সবার মতো তিনি কেবল প্রতিশ্রুতি দিয়েই ক্ষান্ত থাকেন না। তার বাস্তবায়ন করে থাকেন। প্রশ্নফাঁসের বিরুদ্ধে তার অবস্থান সত্যিই প্রশংসনীয়। তিনি শিক্ষার্থীদের সমস্যা নিয়ে পয়েন্ট টু পয়েন্ট কথা বলেন, যেটা অনেকে ঘোজামিল দেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তিনি তা করেন না।''

ভিপি পদে নুরুল হক নুর পেয়েছেন ১১০৬২ আর শোভন পেয়েছেন ৯১২৯। জিএস পদে গোলাম রাব্বানী পেয়েছেন  ১০৪৮৪ আর রাশেদ খান পেয়েছেন ৬০৬৩ ভোট।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।