বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যক্রমে মুগ্ধ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা


NSTU
Published: 2019-11-02 18:35:27 BdST | Updated: 2019-11-21 07:55:33 BdST

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ শেষ হয়েছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছেন লক্ষাধিক শিক্ষার্থী। অপরিচিত এলাকায় এসে বেগমগঞ্জ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে নানা আয়োজন দেখে রীতিমতো মুগ্ধ হয়েছে ভর্তিচ্ছু ‍শিক্ষার্থীরা।

ইমরান নামে দিনাজপুর থেকে আসা এক শিক্ষার্থী বলেন, অচেনা জায়গায় কিভাবে থাকবো এটা নিয়ে সংকায় ছিলাম, কিন্তু বেগমগঞ্জ উপজেলার ছাত্রলীগের আপ্যায়ন দেখে আমরা অবাক হয়েছি।আমরা উনাদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকবো। নোয়াখালীর মত এমন আপ্যায়ন আর কেউ করতে পারবে না। বিশেষ করে ‍উনাদের আচরণ আমাকে মুগ্ধ করেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, সোমবার (২৮ অক্টোবর) বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পানি এবং কেন্দ্রে পৌঁছে দিতে নানাভাবে সহযোগিতা করেছেন।এসব তদারকি করছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি জিহান আল রশিদ ও বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নেতারা।

.

এছাড়াও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আগত ভর্তি পরীক্ষার্থীদের বেগমগঞ্জের কেন্দ্রগুলোতে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা করেছে বেগমগঞ্জের সংসদ সদস্য মামুর রশিদ কিরন।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি জিহান আল রশিদ বলেন 'সারাদেশ থেকে আগত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহায়তা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহায়তা করতে আমরা বেগমগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ, চৌমুহনী পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ভর্তি সহায়তা কেন্দ্র ও থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছি।

উল্লেখ্য, গতবারের মতো এবারো সারাদেশ থেকে আগত ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের ফ্রি থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করে প্রশংসিত হচ্ছেন অতিথিপরায়ণ নোয়াখালীবাসীরা। ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবক মিলিয়ে ইতিমধ্যে সারাদেশ থেকে নোয়াখালীতে এসেছেন প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের বিনা খরচে আবাসন, খাওয়া, কেন্দ্রে যাতায়াত, প্রাথমিক চিকিৎসা, নিরাপত্তাসহ সব ধরণের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে স্থানীয় সাংসদ সদস্য, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি, রাজনৈতিক সংগঠন, জেলা ক্রিড়া সংস্থাসহ সরকারি-বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠানে এবং ব্যক্তিগত উদ্যোগে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।