ফেসবুকে আর্থিক সংকটের পোস্ট দিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীর আত্মহত্যা!


Netrokona
Published: 2020-10-26 02:31:04 BdST | Updated: 2020-11-27 08:32:09 BdST

আর্থিক সংকট আর মানসিক ভাবে ভেঙে পড়ার বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন নেত্রকোনার কমলাকান্দার এক ছাত্রলীগ কর্মী আল মামুন।

রবিবার তার নিজ বাসা থেকে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এর আগে ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্টে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আর্থিক সঙ্কটের কথা জানান দিয়ে তিনি একটি পোস্ট করেন। মামুন উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের বিশাউতি গ্রামের রফিকুল মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের কর্মী হয়ে কমলাকান্দা উপজেলা বিভিন্ন মিটিং মিছিল থেকে শুরু করে দলীয় বিভিন্ন কাজেই প্রতিনিয়ত অংশগ্রহণ করে আসছিলো আল মামুন।

তবে পরিবারের আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় প্রতিনিয়তই হিমশিম খেতে হতো তাকে। পরিবারের বড় ছেলে হয়েও পরিবারের জন্য কোন কিছু করতে না পারায় প্রতিনিয়তই হতাশায় ভুগতো। স্থানীয়রা সব সময় মামুনকে সহায়তার পাশাপাশি মানসিক হতাশা কাটাতে পরামর্শ দিয়েছেন।

পাঁচ সদস্যের পরিবার মামুনের। বাবা চায়ের দোকানদার এবং বোন গার্মেন্টস শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন। মামুন নিজেও টিউশনি ও টিফিনের টাকা বাঁচিয়ে পরিবারের দুবেলা দুমুঠো ভাত জোগাড়ের চেষ্টায় থাকতো সবসময়। গত দুই বছরে পরিবারের আর্থিক অবস্থা দিনে দিনে খারাপের দিকে যেতে থাকে।

পরিবর্তী করুণ অবস্থা দেখে গত বছরের ডিসেম্বরের ১ তারিখ রংছাতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাহেরা খাতুন নিজে প্রধানমন্ত্রী বরাবর মামুনের পরিবারের জন্য সাহায্যের আবেদন করেন ।

সর্বশেষ রবিবার আত্মহত্যার পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরিবারের আর্থিক সংকট কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সহায়তায় একটি পোস্ট করেন। এর পরপরই নিজ ঘরেই গলায় রশি বেঁধে আত্মহত্যা করেন এই ছাত্রলীগ কর্মী ।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মাহমুদা শারমিন নেলি জানান, খবর শোনার পর তার নিজ ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে ।