‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ ছাত্রলীগের স্টলে ১৮০, যুবলীগের স্টলে ১৫০টাকা, কেন?


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-14 21:14:48 BdST | Updated: 2018-08-15 09:34:59 BdST

বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৮ উপলক্ষে এবার সব স্টলে বইয়ের ওপর ২৫% ছাড়ের কথা বলা হলেও এ নিয়ম মানছে না ছাত্রলীগ। বইমেলা শুরুর আগে সংবাদ সম্মেলন করে মেলার আয়োজক বাংলা একাডেমি জানায় যে, এবার বইমেলা থেকে বই কিনলে ক্রেতারা সব বইয়ের ওপর ২৫% কমিশন পাবেন। আর যারা বিকাশে টাকা পেমেন্ট করবেন তাদের জন্য বিকাশ কর্তৃপক্ষ মূল কমিশনের বাইরে আরও ১০% কমিশন দেবে। যারা এ নিয়ম মানবে না, তাদের বিরুদ্ধে মেলা কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিবে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, মেলা কর্তৃপক্ষের এ নিয়ম মানছে না ছাত্রলীগ। বইমেলায় তাদের স্টল ‘মাতৃভূমি’তে তারা ২০% কমিশনে বই বিক্রি করছেন।

বঙ্গবন্ধুর ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ বইটি এখানে ১৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অথচ যুবলীগের স্টল যুব জাগরণে তা ১৫০ টাকায় মিলছে। বঙ্গবন্ধুর ‘কারাগারের রোজনামচা’ বইটি বাংলা একাডেমি ও যুবলীগের যুব জাগরণে ৩০০ টাকায় বিক্রি হলেও ছাত্রলীগের মাতৃভূমি স্টলে তা বিক্রি হচ্ছে ৩২০ টাকায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী মৌসুমী খাতুন বাংলাদেশ জার্নালের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের কাহিনী সম্বলিত একটি বই কেনার জন্য বন্ধুদের সাথে নিয়ে আমি ‘মাতৃভূমি’ স্টলে যাই। ভেবেছিলাম ছাত্রলীগের এ স্টলে বইয়ের দাম কম হবে। কিন্তু তারা স্বাভাবিকের চেয়ে কম কমিশন দিতে চায়। আমি বিক্রয়কর্মীদের অন্য স্টলে ২৫% কমিশন আপনাদের এখানে কম কেন? জানতে চাইলে তারা আমাকে নিজস্ব কোন প্রকাশনা নেই এ অজুহাত দেয়। আমার মনে হয় যারাই বাংলা একাডেমির নিয়ম না মানবে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া উচিত’।

কম কমিশনে বই বিক্রির কারণ হিসেবে তারা দেখিয়েছেন, নিজস্ব কোন প্রকাশনা না থাকা এবং অন্য প্রকাশনীর বই কিনে এনে বিক্রি করা। এ স্টলের বিক্রয়কর্মী বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘আমাদের ভাইয়েরা আমাদের যেভাবে বিক্রি করতে বলেছে আমরা সেভাবেই বিক্রি করছি। আমাদের নিজস্ব কোনো প্রকাশনা নেই। তাই অন্য প্রকাশনা থেকে বই কিনে এনে বিক্রি করি’।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। এসব বিষয়ে প্রচার সম্পাদকই ভালো বলতে পারবে।

ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক ম. সাইফ বাবু পুরো বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘আমাদের স্টলে ২৫% কমিশনেই বই বিক্রি হয়। নতুন কেউ স্টলে বসে হয়তো ২০% কমিশনের কথা বলেছে। আমি বিষয়টি দেখছি’।

মেলা আয়োজন কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘বইমেলার শুরুতেই স্টল পাওয়া সবাইকে ২৫% কমিশনে বই বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়। কেউ তা না মানলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

বিডি জার্নাল/বিডিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।