গৌরীপুরে দগ্ধ রিকশাচালক মতিউরের পাশে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা


টাইমস অনলাইনঃ
Published: 2018-02-19 19:34:14 BdST | Updated: 2018-09-23 05:34:50 BdST

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে পেট্রলবোমায় দ্বগ্ধ রিকশাচালক মতিউরের রহমানের দুরাবস্থা নিয়ে একটি অনলাইনে খবর প্রকাশের পর তার দিকে আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

মতিউরের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি ছাত্রলীগের এই নেতা নিজ উদ্যোগে আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে গৌরীপুর থানা হেফাজতে থাকা মতিউরের রিকশাটিও উদ্ধারের ব্যবস্থা করে দেন।

সোমবার গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার আহমদ মতিউরকে রিকশাটি বুঝিয়ে দেন। এরপর ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রাব্বানীর পক্ষ থেকে পাঁচ হাজার টাকা অনুদান দেয়া হয় রিকশাচলানক মতিউরকে।

নিউজবাংলাদেশের গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা রাকিবুল ইসলাম রাকিব সোমবার দুপুরে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মর্জিনা আক্তারের উপস্থিতিতে মতিউরের কাছে ওই অনুদানের টাকা তুলে দেনা হয়।

জানা গেছে, উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের শাহগঞ্জ বাজার সংলগ্ন ফুলবাড়িয়া গ্রামে রিকশাচালক মতিউর রহমান স্কুল পড়ুয়া দুই সন্তানের জনক। কয়েক মাস আগে তিনি স্থানীয় আশা সমিতি থেকে নেয়া ঋণের টাকায় কেনা রিকশা কেনেন। কিন্তু গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর রাতে অচিন্তপুর ইউনিয়নের শাহগঞ্জ বাজারে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিরোধের ছুড়ে দেয়া পেট্রলবোমায় দগ্ধ হন রিকশাচালক মতিউর। পুড়ে যায় তার রিকশার একাংশ। এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনার আলামত সংগ্রহ করতে গিয়ে তার রিকশাটি থানা হেফাজতে নেয়। এর কিছু দিন পর দগ্ধ মতিউর সুস্থ্য হয়ে থানায় রিকশা আনতে গেলে প্রায় দশ বার রিকশা ফেরত দেয়ার তারিখ নির্ধারণ করেও রিকশাটি ফেরত নেয়া হয়নি।

পরে গত ১১ ফেব্রুয়ারি নিউজবাংলাদেশে ‘ঋণের টাকায় কেনা রিকশা ২ মাস ধরে থানায়, দিশেহারা মতিউর’ শিরোনামে খবর প্রকাশের বিষয়টি ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রাব্বানীর নজরে এলে তিনি মতিউরের রিকশাটি হস্তান্তরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি তাকে আর্থিক সহযোগিতা করেন।

এ বিষয়ে গোলাম রাব্বানী বলেন, “নিউজবাংলাদেশের মাধ্যমে মতিউর ভাইয়ের দূরাবস্থার বিষয়টি জানতে পেরে সমস্যা সমাধানে নিজেই উদ্যোগী হই। জীবিকার একমাত্র বাহন রিকশাটি ফেরত পেয়ে মতিউর ভাইয়ের মুখে হাসি ফুটেছে। তার মুখের এই অমলিন হাসিটুকুই আমার উপহার; বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উপহার।”

এদিকে, রিকশাচালক মতিউর বলেন, “রিকশাটি উদ্ধারের জন্য অনেকের কাছে গিয়েছি, কিন্তু কেউ সাহায্য করেননি। রাব্বানী ভাইয়ের কারণেই আজ রিকশা ফেরত পেয়েছি। রিকশা মেরামত করার জন্য তিনি আমাকে টাকাও দিয়েছেন। রাব্বানী ভাই মানুষ না তিনি একজন ফেরেশতা।”

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহমদ বলেন, “আইনি প্রক্রিয়া শেষে গতকাল সোমবার মতিউরকে শর্তসাপেক্ষে রিকশাটি হস্তান্তর করা হয়েছে।”

বিডিবিএস 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।