শাবিতে ছাত্রীকে র‌্যাগিংয়ের নামে মানসিক নির্যাতন


টাইমস প্রতিবেদক
Published: 2017-07-19 20:54:42 BdST | Updated: 2018-08-14 21:47:35 BdST

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের তিন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে একই বিভাগের এক ছাত্রীকে র‌্যাগিং ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত ওই তিন শিক্ষার্থী হলেন, রিয়াদ, আদনান এবং হাফিজ। তারা বর্তমানে দ্বিতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী বুধবার দুপুরে প্রক্টর বরারব লিখিত অভিযোগ দিয়ে অভিযুক্তদের দ্রুত বিচার ও শাস্তি দাবি করেছেন।

লিখিত অভিযোগে ওই শিক্ষার্থী উল্লেখ করেন, পড়ালেখার সহযোগিতার কথা বলে রিয়াদ, আদনান ও হাফিজ ১১ জুলাই তাকে শহীদ মিনারের নিচে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে গিয়ে মানসিকভাবে চাপ সৃষ্টি করে। পরে মোবাইল ফোনে বিভিন্ন আলাপ করে মানসিকভাবে নির্যাতন করে। অনবরত উত্ত্যক্ত ও ভয়ভীতি দেখিয়ে যাচ্ছে।

ওই ছাত্রী অভিযোগে আরও উল্লেখ করেন, গত সোমবার তার ব্যাচের সবার সঙ্গে আলোচনার নামে টার্গেট করে তারা তাকে হেয়প্রতিপন্ন করে। যার ফলে এক পর্যায়ে আমি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ি এবং অজ্ঞান হয়ে গেলে বন্ধুরা আমাকে জালালাবাদ রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত শিক্ষার্থী রিয়াদ অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং নিজেকে নির্দোষ দাবি করে এটি সাজানো নাটক বলেন। অভিযোগ অস্বীকার করে একই কথা বলেন হাফিজ। এসময় আদনানের মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে নৃ-বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান অধ্যাপক এ কে এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে আমি একটি অভিযোগ পেয়েছি এবং দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। আর কমিটিকে দ্রুত কাজ করার জন্য বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রক্টর জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, একটি লিখিত অভিযোগপত্র পেয়েছি। সে প্রক্টর মহোদয়ের কাছে অন্যায় আচরণের প্রতিকার চেয়েছে। বিষয়টি আমি খোঁজ নিচ্ছি।

টিআর/ ১৯ জুলাই ২০১৭

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।