ফ্রান্সে হিজাবধারী শিক্ষার্থী উপস্থিত হওয়ায় ডানপন্থী সাংসদদের বৈঠক ত্যাগ


টাইমস ডেস্ক
Published: 2020-09-18 11:31:39 BdST | Updated: 2020-10-24 15:44:10 BdST

শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে হিজাবধারী মুসলিম নারী উপস্থিত হওয়ায় সংসদে অনুষ্ঠিত বৈঠক ত্যাগ করেছেন ফ্রান্সের ডানপন্থী রিপাবলিকান সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ফ্রান্সের সংসদে ‘তরুণদের মধ্যে করোনা মহামারির প্রভাব’ শীর্ষক এক বৈঠকে এ ঘটনা ঘটে। ওই বৈঠকে ফ্রান্সের সরবোন বিশ্ববিদ্যালয়ের ন্যাশনাল স্টুডেন্টস ইউনিয়নের প্রতিনিধি হিসেবে হিজাবধারী মারয়াম বুজতিও উপস্থিত হোন।

ক্ষমতাসীন ডানপন্থী দলের সদস্য অ্যান ক্রিস্টিয়ান ল্যান বলেন যে হিজার পরিধান করায় তাঁরা ছাত্র ইউনিয়নের প্রতিনিধি মারয়াম বুজতিওকে গ্রহণ করবে না। একথা বলেই তারা হল ত্যাগ করেন।

দীর্ঘ দিন যাবত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে গণতন্ত্রের মূলকেন্দ্র সংসদে অনুষ্ঠিত বৈঠকে হিজাবধারী কারো উপস্থিতির তুমুল বিরোধিতা করে আসছে ক্রিস্টিয়ান ল্যান।

ল্যান বলেন, ‘একজন সংসদসদস্য হিসেবে নারীবাদি ও নারী অধিকার সুরক্ষাসহ রিপাবলিকান ও সেক্যুলারিজমের মান রক্ষায় আমি কখনও আমাদের বৈঠকে এমন কারো অংশগ্রহণ গ্রহণ করব না যে হিজাব পরিধান করে।’

ওই বৈঠকটির সভাপতি ক্ষমতাসীন আরেকটি দলের সদস্য স্যানড্রাইন মোর্চ বলেন, ‘সাংসদদের এমন আচরণের কোনো প্রয়োজন ছিল না। তাছাড়া এমন কোনো আইন নেই যাতে ধর্মীয় বেশভূষা ধারণ করে কোনো বৈঠকে উপস্থিত হওয়া মানুষের জন্য নিষেধ।’

মোর্চ আরো বলেন যে দেশের তরুণদের নিয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনার বিষয় অন্যদিকে মোড় ঘুরিয়ে হ্যাডস্কাফের কাল্পনিক বিষয়ে আলোচনার সুযোগ দেবেন তিনি।

ইতিপূর্বে ২০১৮ সালে ছাত্র ইউনিয়ন ইউএনএফ-এর পক্ষ থেকে বক্তা নিযুক্ত হলে দেশটির জেন্ডার ইকুয়ালিটি বিষয়ক মন্ত্রী মারলিনা শিয়াপা ও অন্যান্য রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হন মারয়াম বুজতিও।

সূত্র : আনাদোলু এজেন্সি