জবি ছাত্রী অঙ্কনের মৃত্যু রহস্য উদ্ঘাটনের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বলন


Desk report | Published: 2022-05-11 21:24:53 BdST | Updated: 2022-05-28 16:54:54 BdST

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী অঙ্কন বিশ্বাসের মৃত্যু রহস্য দ্রুত উদ্ঘাটনের দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বলন করেছেন তার সহপাঠীরা।

বুধবার (১১ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে অঙ্কনের ফ্রেমসহ ছবির সামনে মোমবাতি প্রজ্বলন করেন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এ সময় সত্য উদ্ঘাটনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা।

কর্মসূচিতে অঙ্কনের সহপাঠী আবু রায়হান বলেন, এ রকম প্রচণ্ড মেধাবী একজন শিক্ষার্থী হুট করে সবার মাঝ থেকে হারিয়ে যেতে পারে না। আমরা চাই অঙ্কনের মৃত্যু রহস্যের আইনি তদন্ত হোক।

‘আমরা কারও বিরুদ্ধে অন্যায় হোক সেটা চাই না। অঙ্কনের ক্ষেত্রে তো একেবারেই না। আমরা চাই, আমাদের সামনে এত সম্ভাবনাময় একটি মানুষের মৃত্যু যেন রহস্যের জালে চাপা না পড়ে।’

তিনি আরও বলেন, এই দাবিগুলোর ভিত্তিতে আমরা ইংরেজি বিভাগের পরবর্তী কর্মসূচি হিসেবে আগামীকাল (১২ মে) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন করবো।

‘যে করেই হোক এ বিষয়ে তদন্ত করে সত্য উদ্ঘাটন করতেই হবে। আমরা আশা করবো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও বিষয়টি নিয়ে এগিয়ে আসবে।’

অঙ্কনের আরেক সহপাঠী নাহিদ হাসান রবিন বলেন, অঙ্কনকে আর ফিরে পাবো না কখনওই। তবে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য অবশ্যই সুষ্ঠু তদন্ত হতেই হবে। না হলে ভবিষ্যতে আমরা আরও এমন অনেক অঙ্কনকে হারাবো।

এর আগে গত শনিবার (৮ মে) দুই সপ্তাহ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে মারা যান অঙ্কন বিশ্বাস।

গত ২৪ এপ্রিল শাকিল নামে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বন্ধুর বাসায় গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন অঙ্কন। ওইদিনই রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় রেখে পালিয়ে যান শাকিল। জানা যায়, শাকিল ও অঙ্কনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

অঙ্কন বিশ্বাসের মৃত্যু নিয়ে কয়েকদিন ধরেই ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। শুরু থেকেই তার সহপাঠীরা মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটনের দাবি জানিয়ে আসছেন। তবে মৃত্যুর পর দুদিন কেটে গেলেও তার পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো মামলা করা হয়নি।