টিউশন ফি ছাড়াই সুইডেনের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ


Desk report | Published: 2021-12-20 16:10:39 BdST | Updated: 2022-08-11 05:29:25 BdST

ইউরোপের দেশ সুইডেন। আধুনিক শিক্ষাব্যবস্থা, বিশ্ব স্বীকৃত গবেষণাকর্ম, বৃত্তি, গ্রুপ ওয়ার্ক ও মুক্তচিন্তার পরিবেশ উচ্চশিক্ষায় সুইডেনকে আকর্ষণীয় করে তুলেছে। সুইডেন ইউরোপের একটি অন্যতম আধুনিক ও উন্নত দেশ। এর রাজধানীর নাম স্টকহোম। দেশটির উত্তর-পূর্ব দিকে আছে ফিনল্যান্ড, পশ্চিম দিকে নরওয়ে, দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে ওরেসুন্দ সেতু। যেটা দিয়ে ডেনমার্ক যাওয়া যায়, সুইডেন স্ক্যান্ডিনেভীয় দেশগুলোর মধ্যে বৃহত্তম দেশ। দেশটিতে যেসব বিষয়ে পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে সেগুলো হলো- পরিবেশ বিজ্ঞান, ভাষা শিক্ষা, কৃষি গবেষণা ও ইঞ্জিনিয়ারিং, এমবিএ, টেলিকমিউনিকেশন, আইন, গণিত, জনস্বাস্থ্য, আর্ট অ্যান্ড ডিজাইন, মেডিকেল, অর্থনীতি, ভূগোল, হিউম্যান রিসোর্স, হেলথ কেয়ার ম্যানেজমেন্ট, ফিল্ম ও মিডিয়া, লাইফ সায়েন্স ইত্যাদি।

সুইডেনের সবচেয়ে প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটি উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়। ১৪৭৭ সালে এটি স্ক্যান্ডিনেভিয়া এলাকায় প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। বর্তমানে আন্তর্জাতিক র‌্যাঙ্কিংয়ে উত্তর ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়টির অবস্থান শীর্ষে। এ ছাড়া ইউরোপে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনাকে অত্যন্ত মর্যাদাসম্পন্ন বলে গণ্য করা হয়। প্রতি বছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনেক শিক্ষার্থী তাদের উচ্চশিক্ষার জন্য পাড়ি জমান সুইডেনে।

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়টি ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে মেধাবী ও আর্থিকভাবে অসচ্ছল বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য কিং গুস্তাভ বৃত্তি ঘোষণা করেছে। সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের জন্য এটি অন্যতম আকর্ষণীয় একটি স্কলারশিপ। কিং কার্ল গুস্তাফ স্কলারশিপ নামের এই প্রোগ্রামের আওতায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরাও অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

কিং কার্ল গুস্তাফ স্কলারশিপ এমন শিক্ষার্থীদের প্রদান করা হয়ে থাকে, যারা সংঘর্ষপূর্ণ বা প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় অনিরাপদ এবং বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে বসবাস করেন। এই স্কলারশিপের আওতায় উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার জন্য টিউশন ফির সম্পূর্ণ খরচ প্রদান করা হয়। টিউশন ফি ছাড়া দৈনন্দিন খরচের জন্য অন্য কোনো মাসিক বা বার্ষিক ভাতা এই বৃত্তির অন্তর্ভুক্ত নয়।

সুযোগ-সুবিধা

- ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও সুইজারল্যান্ডের বাইরের দেশের শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি দেওয়া হবে।

- টিউশন ফি সম্পূর্ণ মওকুফ করা হবে। তবে আবাসন ও দৈনন্দিন খরচ নিজে বহন করতে হবে।

- বিশ্ববিদ্যালয়টির যে কোনো বিষয় নিয়ে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করা যাবে।

আবেদনের যোগ্যতা

- আবেদনকারীকে অবশ্যই বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, আজারবাইজান, কঙ্গো, হন্ডুরাস, মালি, ফিলিপাইন, সোমালিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া বা ইয়েমেনের নাগরিক হতে হবে।

- আবেদনকারীদের অবশ্যই দেখাতে হবে কেন আপনি বিশেষভাবে দুর্বল এবং তাই উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাগত পরিবেশের প্রয়োজন, একই সঙ্গে প্রয়োজনীয় একাডেমিক প্রতিভা রয়েছে।

- বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির সময়সীমার আগে আপনাকে অবশ্যই মাস্টার্স প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

- আপনি যে প্রোগ্রামে আবেদন করেছেন তার জন্য আপনাকে অবশ্যই প্রবেশের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে হবে।

এই বৃত্তি আর্থিকভাবে অসচ্ছল মেধাবী শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়। তাই আর্থিক অসচ্ছলতার বিবরণ দিতে হবে। উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি মাস্টার্স প্রোগ্রামের জন্য এই কিং কার্ল গুস্তাফ স্কলারশিপ দেওয়া হবে। মাস্টার্স প্রোগ্রামে ভর্তির নির্দিষ্ট সময়ের আগেই অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আবেদন ফি ও অন্য সব নথিপত্র ভর্তির নির্দিষ্ট সময়ের আগেই বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে।

আবেদনের প্রক্রিয়া

- স্কলারশিপের জন্য বিবেচিত হওয়ার জন্য আপনাকে প্রথমে ১৭ জানুয়ারি ২০২২-এর মধ্যে উপসালা ইউনিভার্সিটিতে স্নাতক বা স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামের জন্য একটি আবেদন জমা দিতে হবে।

- এই ধাপের পরে বৃত্তি আবেদনের সময় শুরু হয়।

বৃত্তির জন্য আবেদন করার জন্য আপনাকে বৃত্তি আবেদনের সময়কালে একটি অনলাইন আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। ১৮ জানুয়ারি থেকে ১ ফেব্রুয়ারি ২০২২-এর মধ্যে স্কলারশিপ আবেদনের সময়কালে আবেদনকারীর অ্যাক্সেস পাওয়া যাবে- www.universityadmissions.se-এ।

আপনার প্রোগ্রামের আবেদনের জন্য জমা দেওয়া সহায়ক নথিগুলোও তারা পর্যালোচনা করবে। অতএব, আবেদনকারীকে বৃত্তির আবেদনপত্রে কোনো অতিরিক্ত নথি জমা দেওয়ার দরকার নেই।

আবেদনের শেষ তারিখ: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২২।

বিস্তারিত জানতে ই-মেইল:  [email protected]