প্রকাশ্যে চকরিয়া ছাত্রলীগ সভাপতির ওপর সন্ত্রাসী হামলা


Cox'sbazar | Published: 2021-04-10 06:41:24 BdST | Updated: 2021-05-14 07:23:12 BdST

কক্সবাজারের চকরিয়া পৌর এলাকার থানা রাস্তার মাথায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মারুফের ওপর প্রকাশ্যে হামলা চালিয়েছেন দুর্বৃত্তরা। ছিনিয়ে নিয়ে গেছে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল, মোবাইল ও নগদ টাকা। শুক্রবার বিকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এনিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা পৌর শহরে দফায় দফায় বিক্ষোভ করে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন।

হামলার শিকার মো. মারুফ চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কিছমত পাড়া গ্রামের মাস্টার আবুল কাশেমের পুত্র।

এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতার বড় ভাই সাংবাদিক আবুল মনসুর মোহাম্মদ মহসিন (৩৮) বাদী হয়ে রাতেই থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন।

এতে আসামি করা হয়েছে- ফাসিয়াখালী ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আজম উল্লাহ পাড়ার রুহুল কাদেরের পুত্র মো. আরফাত (২৫), চকরিয়া পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ড মাস্টার পাড়ার বদিউজ্জামানের পুত্র ইমন (২৪), মো. হানিফসহ (২৪) আরও ৫/৬ জনকে।

এজাহারে জানা গেছে, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মারুফ শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে ফাঁসিয়াখালীর নিজ বাড়ি থেকে মোটর সাইকেল যোগে সবুজ বাগ আবাসিক এলাকাস্থ বড় ভাইয়ের ভাড়াবাসায় আসছিলেন। পূর্বশত্রুতার জেরে পরিকল্পিতভাবে চকরিয়া থানা রাস্তার মাথায় মোটরসাইকেল গতিরোধ করে লোহার রড, হাতুড়ি, লাঠিসোটা নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। তার মাথা, দুই হাত, দুই রানে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

এসময় হামলাকারীরা দুইটি দামি মোবাইল, নগদ সাড়ে ১৫ হাজার টাকা ও তার ব্যবহারের মোটরসাইকেলটি নিয়ে যায়। মারুফের চিৎকারে পথচারী লোকজন এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করান।

এদিকে, চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মো. মারুফের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে সন্ধ্যা ৭টায় চকরিয়া মহাসড়কে দফায় দফায় বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ করেছেন চকরিয়া উপজেলা ও পৌরসভা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাঙ্গণে তাৎক্ষনিক সংবাদ সম্মেলন করে হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি জানান। এ সময় বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আকিত হোসেন সজিব ও পৌরসভা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা পারভেজ।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম এমএ, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, সহসভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, যুগ্ম সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরী, পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম শহিদ, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কচির, পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি হাসানগীর হোছাইন ও সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম সোহেল। নেতৃবৃন্দরা ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারপূর্বক শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনের নিকট আহ্বান জানান।

চকরিয়া থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মারুফের ওপর হামলার ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ঘটনার বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতার বড় ভাই আবুল মনসুর মোহাম্মদ মহসিন বাদী একটি এজাহার দিয়েছেন। তা তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।