অধ্যাপক ড. তাজমেরি ইসলামের মুক্তি দাবি ঢাবি ছাত্রদলের


DU Correspondent | Published: 2022-01-14 11:30:35 BdST | Updated: 2022-01-18 18:50:34 BdST

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) রসায়ন বিভাগের সাবেক ডিন ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. তাজমেরি এস ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল।

বৃহস্পতিবার রাতে ঢাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব ও সদস্য সচিব আমান উল্লান আমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানান তারা। একইসঙ্গে ঢাবি প্রশাসনকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তারা।

বিজ্ঞপ্তিতে নেতারা বলেন, অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস এ ইসলামকে একটি মিথ্যা, বানোয়াট ও গায়েবি মামলায় জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে আওয়ামী আজ্ঞাবহ আদালত। বিরোধী মতের রাজনীতিকদের ওপরে অব্যাহত দমন-পীড়নের অংশ হিসেবে এই গায়েবি মামলায় নিজ বাসভবন থেকে পুলিশ এই বিশিষ্ট শিক্ষাবিদকে গ্রেফতার করে এবং আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে তারা আরও বলেন, ড. তাজমেরী এস এ ইসলাম একজন দেশপ্রেমিক শিক্ষাবিদ। তার পিতা মরহুম আলহাজ্ব সিরাজুল হক তালুকদার একজন সংসদ সদস্য ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হিসেবে তিনি ছিলেন স্বনামধন্য এবং প্রশাসক হিসেবেও তিনি খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তিনি ঢাবির রসায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন এবং বিজ্ঞান অনুষদে একাধিকবার ডিন হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। রোকেয়া হলের প্রভোস্ট হিসেবেও তিনি ছাত্রীদের মাঝে জনপ্রিয় ছিলেন। এমন একজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা দেওয়া এবং জামিন না দিয়ে কারাগারে পাঠানো এক ধরনের নির্মম পরিহাস।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল মনে করে, এটি জেল-জুলুমের মাধ্যমে দেশের গুণী নাগরিকদের হেনস্তা করার একটি ঘৃণ্য অপচেষ্টা স্বৈরতান্ত্রিক এবং অগণতান্ত্রিক সরকারকে অবৈধ মসনদে টিকিয়ে রাখতে যারা প্রশাসনকে ব্যবহার করছে তাদেরকে অচিরেই জবাবদিহির আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। অবিলম্বে অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস এ ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি এবং ঢাবি প্রশাসনকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে আটক করে পুলিশ অধ্যাপক ড. তাজমেরী এস ইসলামকে কারাগারে প্রেরণ করেছে। একই দিন বিকেলে পুরনো একটি নাশকতার মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতে তোলে পুলিশ। আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠান। একই মামলার প্রধান আসামি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।