শিগগিরই সংসদে উঠবে শিক্ষা আইন: শিক্ষামন্ত্রী


Desk report | Published: 2022-01-24 19:00:02 BdST | Updated: 2022-05-29 05:52:45 BdST

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‘শিক্ষা আইন’ চূড়ান্ত করার কাজ প্রায় শেষ। আইনের খসড়া চূড়ান্ত করা গেছে। এখন মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদনের পর তা শিগগিরই সংসদে উঠবে। এতে করে দীর্ঘ এক দশকের বেশি সময় যাবত কাঙ্খিত  এ আইনটি বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে। যা দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনবে বলে আমরা মনে করছি।

সোমবার রাজধানীর ব্যানবেইস ভবনের বিএনসিইউ এর সভাকক্ষে ‘পরিবর্তনশীল গতিপথ, রূপান্তরিত শিক্ষা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এসময় তিনি বলেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ২০১০ সালে আমরা একটি জাতীয় শিক্ষানীতি পেয়েছিলাম। এই শিক্ষানীতি প্রস্তুত করা হয়েছিল সংবিধানের চারটি মূলনীতি ও ১৯৭৪ সালের কুদরাত-এ-খুদা শিক্ষা কমিশনের ওপর ভিত্তি করে।

জাতীয় শিক্ষানীতি ২০১০-এ মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর শিক্ষাদর্শনের বিভিন্ন দিকের একটি সমন্বিত প্রতিফলন ঘটেছিল। এই শিক্ষানীতিতে সবার জন্য বৈষম্যহীন গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করার কথা বলা হয়, একই সঙ্গে যুগোপযোগী বিজ্ঞানমনস্ক একটি আধুনিক জাতি তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে একটি ‘সমন্বিত শিক্ষা আইন’ প্রণয়নের সুপারিশ করা হয়, যার মাধ্যমে শিক্ষানীতির মূল বিষয়গুলো বাস্তবায়নের আইনি কাঠামো তৈরি হবে। সরকার ২০১১ সালে এই শিক্ষা আইন তৈরির কাজ শুরু করে।

যা এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এছাড়াও শিক্ষা ব্যবস্থায় আমরা আমূল পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। এর জন্য হচ্ছে নতুন কারিকুলাম। মন্ত্রী বলেন, আমাদের শিক্ষাকে রূপান্তরিত করতে হবে। কারণ বিশ্ব প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে। নিত্য নতুন প্রযুক্তির উদ্ভাবন হচ্ছে। তাই আমরাও এগিয়ে যাবো। জাতির পিতার যে শিক্ষানীতিকে সামনে রেখে এগিয়ে যাবো।

আমরা সবাইকে মান সম্মত শিক্ষা দেয়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। প্রতিবন্ধীদের জন্য কারিগরি নির্ভর শিক্ষাকাঠামো তৈরি করছি। আমরা চেষ্টা করছি যেনো মানসম্মত শিক্ষাব্যবস্থা থেকে কেউ বাদ না যায়। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী থেকে শুরু করে দুর্গম অঞ্চলের বাসিন্দাদেরও শিক্ষার আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে কাজ করছি। সবাই মিলে চেষ্টা করলে নিশ্চয় তা বাস্তবায়ন সম্ভব।