বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশন ফি এত কেন, প্রশ্ন হাইকোর্টের


Desk report | Published: 2022-05-22 23:41:10 BdST | Updated: 2022-08-14 21:37:38 BdST

বাংলাদেশের মতো রাষ্ট্রে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সেশন ফি এত কেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্ট।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্যের আগাম জামিন আবেদনের শুনানিতে এমন প্রশ্ন তোলেন আদালত।

অর্থ আত্মসাতের মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়টির ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্যের আগাম জামিন শুনানিতে রোববার (২২ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এমন প্রশ্ন করেন।

শুনানিতে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবীদের উদ্দেশে আদালত বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সেশন ফি এত কেন? বিশেষ করে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি এত বেশি হওয়া উচিত?

জবাবে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনজীবী মিজান সাঈদ আদালততে বলেন, ‘আমাদের (নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের) শিক্ষার মান খুবই ভালো, শিক্ষকরাও বিশ্বমানের। তাদের পেছনে অর্থ খরচ হয়।’

এরপর আদালত প্রশ্ন তোলেন, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়কে এত জমি কেন কিনতে হবে? জবাবে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষের আইনজীবী বলেন, ‘বলা হয়ে থাকে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের বাইরের মাঠ নেই, জায়গা কম। তাই জমি কিনতে হয়।’

পরে দুদকের আইনজীবী ও রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল এ মামলার শুনানি করেন। এরপর এ বিষয়ে আদেশ দেন হাইকোর্ট।

আদালতে এদিন আসামিপক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার মিজান সাঈদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ, এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক এবং সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলী। দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

এদিকে, ক্যাম্পাসের জন্য জমি কেনা সংক্রান্ত অর্থ আত্মসাতের মামলায় নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চার সদস্যের আগাম জামিন আবেদন খারিজ করেছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে তাদের শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শাহবাগ থানা পুলিশকে তাদের বিচারিক আদালতে হাজির করতে বলা হয়েছে।