যে কারণে পড়তে হবে লোক প্রশাসন


Dhaka | Published: 2022-01-04 11:40:06 BdST | Updated: 2022-06-25 03:45:52 BdST

নাঈমুর রহমান রিজভী

লোক প্রশাসন হলো সরকারি নীতি ও আইনসমূহের জণকল্যানণার্থে বাস্তবায়ন এবং প্রয়োগের সম্মিলিত প্রচেষ্টা। আমেরিকার ২৮ তম প্রেসিডেন্ট থমাস উড্রো উইলসনকে লোক প্রশাসনের জনক বলা হয়।

উচ্চ শিক্ষার জন্য লোক প্রশাসন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এবং বিশ্বব্যাপী রয়েছে বিষয়টির পরিধি এবং ব্যবহারিক কর্মক্ষেত্র। এছাড়াও বিসিএস পরীক্ষায় ক্যাডারগুলোতে লোক প্রশাসনের ছাত্ররা বিশেষ অগ্রাধিকার পেয়ে থাকেন। কিন্তু বিষয়টি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণার অভাবে অনেক শিক্ষার্থীই জানেনা এই বিভাগে কেন পড়া উচিত।

এ বিভাগের একজন শিক্ষার্থীকে অর্থনীতি, সমাজতত্ত্ব, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয় পড়ানো হয়। এছাড়াও ম্যানেজমেন্ট, তথ্য প্রযুক্তি, অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ল, একাউন্টিং, এনজিও অ্যান্ড ভলান্টিয়ারিজম, এনথ্রোপলজি, ফিন্যান্স, ইন্টারন্যাশনাল রিলেশনস, হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট, বাংলাদেশের প্রশাসন ও রাজনীতির ইতিহাস,স্থানীয় সরকার, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, ব্যাংক ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন বিষয় পড়ানো হয় যা একজন দক্ষ প্রশাসক হতে সাহায্য করে।

লোক প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে সরকার। সরকারের পলিসি প্ল্যানিং থেকে শুরু করে পলিসি ফর্মুলেশন, সরকারি প্রশিক্ষণের রক্ষণাবেক্ষণ ইত্যাদি লোক প্রশাসনের ফোকাস এরিয়া।

বাংলাদেশের ঢাকা, রাজশাহী , কুমিল্লা , জাহাঙ্গীরনগর , চট্টগ্রাম ,জগন্নাথ, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনালসহ দেশের আরও অনেকগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে লোক প্রশাসন।

লোক প্রশাসনের চাকরির বাজারে যথেষ্ট গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এবং সরকারি কর্ম কমিশনে রয়েছে এই বিভাগের শিক্ষার্থীদের চাকরির সুযোগ। এছাড়াও বিসিএস এর প্রশাসন, পুলিশ, সিভিল সার্ভিসস সহ বিভিন্ন ক্যাডারে চাকরি পান এ বিভাগের শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি ও আন্তর্জাতিক সংগঠন, ব্যাংক, বীমা এবং এনজিওতে এই বিভাগের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ে বৃত্তি নিয়ে এমপিএ এবং পিএইচডি করার সুযোগ পেয়ে থাকেন।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ রেজাউল করিম বলেন, লোক প্রশাসন একটি আধুনিক ও যুগোপযোগী বিষয়।
লোক প্রশাসনের উপর অর্জিত জ্ঞান একজন শিক্ষার্থীকে নেতৃত্বের গুণাবলি অর্জন ও কর্ম জীবনে দক্ষ প্রশাসক হিসেবে তৈরী করতে সাহায্য করে এবং এভাবে জাতি গঠনেও তারা ভূমিকা পালন করতে পারে।
লোক প্রশাসনে যে বিষয়গুলো পড়ানো হয় তা একজন শিক্ষার্থীকে সিভিল সার্ভিস এবং চাকরির নিয়োগ পরীক্ষায় সহযোগিতা করে। কারণ লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতিটি অনেকাংশে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে হয়ে যায়। এছাড়া ব্যাংক বীমা সহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান, গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও দেশী বিদেশী এনজিওতে এই বিভাগের ডিগ্রি সম্পন্নকারীদের চাকরির সুযোগ আছে।

বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অফ প্রফেশনাল এর প্রভাষক
রবিউল ইসলাম বলেন, লোক প্রশাসন পড়লে একজন শিক্ষার্থী প্রশাসন সম্পর্কে ধারণা পায়। এটা একটা ডিসিপ্লিন, সাবজেক্ট না। ডিসিপ্লিন হওয়ার কারণ হচ্ছে এখানে অনেকগুলো সাবজেক্ট পড়ানো হয়। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকার ও স্থানীয় সরকারের কাজ, কাঠামো, আইনের ভিত্তি, শাসন ব্যবস্থা এটা বুঝার জন্যও লোক প্রশাসন গুরুত্বপূর্ণ।
এখানে যে বিষয়গুলো পড়ানো হয় সেগুলো একজন শিক্ষার্থীকে বিসিএস রিটেন এবং সরকারি চাকরির ক্ষেত্রে এগিয়ে রাখতে সহযোগিতা করে। আমেরিকায় উৎপত্তি হওয়ায় এই বিষয়ের গ্লোবাল ডিমান্ড অনেক বেশি। ব্যাংকিং সেক্টর, প্রাইভেট সেক্টর এবং এনজিওতেও এই বিভাগের শিক্ষার্থীরা সফলতার স্বাক্ষর রাখেন।