দক্ষ ফার্মাসিস্ট গড়ে তুলছে ডিআইইউ ফার্মেসি বিভাগ


Rakibul Islam | Published: 2023-08-28 22:20:37 BdST | Updated: 2023-10-04 15:33:13 BdST

বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৩৫০টি ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত ওষুধ দেশের চাহিদা মিটিয়ে প্রায় ৭০টি দেশে রপ্তানি করা হচ্ছে। আর এসব ওষুধ উৎপাদনে, মাননিয়ন্ত্রণে ও বিপণনে ফার্মাসিস্টদের ভূমিকা অপরিসীম। দেশের মেধাবী ও পরিশ্রমী শিক্ষার্থীরা সময়োপযোগী এই শিক্ষার মাধ্যমে ফার্মাসিস্ট হিসেবে তৈরি হয়ে এ শিল্পকে দেশে ও দেশের বাইরে সুনাম অর্জন করতে সহায়তা করছে।

এরই ধারাবাহিকতায় দেশে দক্ষ ফার্মাসিস্ট গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) ফার্মেসি বিভাগ। শিক্ষার্থীদের দক্ষ ফার্মাসিস্ট গড়ে তুলতে যার অবদান তিনি হলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান খ্যাতনামা অধ্যাপক ফরিদা বেগম। তিনি বর্তমানে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ফার্মেসি বিভাগের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। তার দিকনিদের্শনায় ফার্মেসি বিভাগ আজ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে সবচেয়ে বড় ও আদর্শ বিভাগ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। তার নেতৃত্বে দেশের বরেণ্য ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন প্রবীণ ও নবীন শিক্ষকরা এই বিভাগে শিক্ষাদানের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন।

আর এ বিভাগে রয়েছে সময়োপযোগী ও অনুমোদিত পাঠ্যক্রম, আধুনিক ও পর্যাপ্ত যন্ত্রপাতি সমৃদ্ধ ল্যাবরেটরি এবং প্রয়োজনীয় ও আধুনিক পুস্তক সংবলিত গ্রন্থাগার। তাই এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিমধ্যে কৃতকার্য হওয়া ফার্মাসিস্টরা দেশের বিভিন্ন ওষুধ উৎপাদন প্রতিষ্ঠানে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন।

অধ্যাপক ফরিদা বেগম জানান, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ফার্মেসি বিভাগে রয়েছে সুসজ্জিত ও আধুনিক যন্ত্রপাতি সংবলিত ৯টি ল্যাবরেটরি। যেখানে আধুনিক, সৃজনশীল ও বিভিন্ন জটিল বিষয় নিয়ে শিক্ষার্থীরা সার্বক্ষণিক গবেষণা করে থাকে। এসব গবেষণার ফলাফল, তথ্য-উপাত্ত দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সাময়িকীতে ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়েছে যা বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের কাছে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। আর এ ইউনিভার্সিটির বিশেষত্ব হলো, স্বল্প খরচে মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের মানসম্পন্ন শিক্ষাদান করা হয়।

ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব স্ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী (এমপি) জানান, শিক্ষার মান বজায় রেখে এখানে ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান দেওয়া হয়। এখানে অন্যান্য ভার্সিটি থেকে টিউশন ফি অনেক কম নেওয়া হয়। এর মানে এই নয় যে, শিক্ষার গুণগতমানের দিক থেকে আমরা ছাড় দিচ্ছি। চাকরির প্রতিযোগিতার বাজারে শিক্ষার্থীরা যেন সফলতা অর্জন করতে পারে সে দিকটি নজরে রেখে তাদের গড়ে তোলা হয়।

 

 

//