হতাশাগ্রস্ত হলে সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করতে হবে: পাবিপ্রবি ভিসি


Desk report | Published: 2022-06-30 20:12:11 BdST | Updated: 2022-08-14 22:28:57 BdST

হতাশা সবার মধ্যেই থাকতে পারে। হতাশাগ্রস্ত হলে সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করতে হবে। জীবনের প্রতিটি ছোট ছোট প্রাপ্তিকে আত্মতুষ্টির সাথে বড় করে দেখতে হবে। আত্মতুষ্টির জায়গাকে প্রসারিত করতে হবে। ভালো লাগা এবং ভালোবাসার জায়গাকে গুরুত্ব দিতে হবে। তাহলেই জীবনের সত্যিকারের প্রাপ্তিটা আসবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুগোল ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষার্থীদের সাথে 'মিট দ্যা জিওগ্র্যাফারস' শিরোনামে খোলামেলা এক আলোচনায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের প্রশ্নোত্তর পর্বে একজন ছাত্রী জীবনের হতাশা নিয়ে করণীয় জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, "হতাশাগ্রস্ত হলে সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করতে হবে। পাশাপাশি বিশ্বস্ত কারো কাছে নিজের হতাশার কথাকে প্রকাশ করতে পারলে নিজেকে হালকা লাগবে। যখন তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনোকিছু শেয়ার করা থেকে বিরত থাকতে হবে। ফেসবুক আমাদের সমস্যার তেমন কোনো সমাধান দিতে পারবেনা। তিনি আরো বলেন, আমাদের বিভিন্ন সমস্যা আছে, এই সমস্যার মধ্যেও আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।"

এ আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন শিক্ষার্থীদের সাথে প্রাণবন্ত খোলামেলা আলাপ করেন। তিনি তাঁর শিক্ষাজীবন, কর্মজীবনের বিভিন্ন বিষয় শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরেন। শিক্ষার্থীদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনেন এবং বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, শিক্ষার্থীদের সাথে উন্মুক্ত আলাপনের এই আয়োজন সকাল ১০:০০ টায় শুরু হয়ে ১১.৩০ মিনিটে শেষ হয়। প্রাণবন্ত আলাপে বিভাগের সকল শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। "ভূগোল ও পরিবেশ অ্যাসোসিয়েশনের" উদ্যোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যালারী-০২ তে মনোমুগ্ধকর আলোচনাটি সম্পন্ন হয়।

এ সময় পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষকদের মধ্যে চেয়ারম্যান ড. মো. রাহিদুল ইসলাম, ড. মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম, এএইচএম মঞ্জুরুল মামুন এবং হুমায়রা আঞ্জুম উপস্থিত ছিলেন।