প্রশাসনের আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন কুবি শিক্ষার্থীরা


Desk report | Published: 2023-03-21 02:33:31 BdST | Updated: 2024-06-16 13:07:07 BdST

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) প্রশাসনের আশ্বাসে অনশন ভাঙলেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে দাবি মানা না হলে আবারও আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

আমরণ অনশন শুরুর প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর আজ সোমবার বিকেল ৪টায় পানি পান করিয়ে অনশন ভাঙান উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আসাদুজ্জামান।

গত ৮ মার্চ শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত উল্লাহ, একই হলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সালমান চৌধুরী হৃদয় ও বিজ্ঞান অনুষদের সহ-সভাপতি সাইদুল ইসলাম রোহানের ওপর স্থানীয় ছাত্রদল নেতারা হামলা চালান। এ ঘটনার পর ছাত্রলীগের নেতারা অভিযোগ করেন, হামলাকারীরা ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকী ‘ইন্ধনে’ এ ঘটনা ঘটেছে। পরে প্রক্টরের পদত্যাগসহ পাঁচ দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

তাদের দাবিগুলো হলো- প্রক্টরের পদত্যাগ, দুই শিক্ষার্থীর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার, সন্ত্রাসীদের ক্যাম্পাসে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ, হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও নিরাপদ ক্যাম্পাস নিশ্চিত করা।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালীন আদালত থেকে চার আসামি আগাম জামিন পেয়েছেন বলে জানান জেলা পুলিশ সুপার আবদুল মান্নান।

এদিকে টানা ১২ দিন আন্দোলন চললেও প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় গত রোববার অনশনে বসেন চার শিক্ষার্থী। তাদের সঙ্গে অনশনে যোগ দেন এক ছাত্রীসহ আরও তিন শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, ‘নিশ্চয়তা পেয়ে তোমরা অনশন ভাঙেছো, এটা ধরে নিচ্ছি। এই আন্দোলন এখানে শেষ, এরপর যদি কোনো ঘটনা ঘটে তাহলে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

আন্দোলনের মুখপাত্র মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, প্রক্টরের পদত্যাগ ছাড়া বাকি চারটি দাবি মেনে নিয়েছে প্রশাসন। প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। আমরা আশ্বস্ত হয়ে আন্দোলন শিথিল করেছি। আশ্বাস বাস্তবায়িত না হলে আবারও আন্দোলন করা হবে।’

উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএফএম আবদুল মঈন বলেন, শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারাদেশ স্থগিত থাকবে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সিন্ডিকেট সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আর প্রক্টরের বিরুদ্ধে যথাযথ প্রমাণ দিতে পারলে ব্যবস্থা নেব।