চবিতে ছাত্রী ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্ত শিক্ষককে অপসারণের সিদ্ধান্ত


CU Correspondent | Published: 2024-02-16 23:24:04 BdST | Updated: 2024-04-20 07:19:50 BdST

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শিক্ষার্থীদের লাগাতার আন্দোলনের মুখে ছাত্রী যৌন নিপীড়ন, যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণচেষ্টায় রসায়ন বিভাগের অভিযুক্ত শিক্ষক অধ্যাপক ড. মাহবুবুল মতিনকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিশেষ সিন্ডিকেট সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সিন্ডিকেট সভাটি বিকেল ৪টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে।

তবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ২টি দাবির মধ্যে ছিল শিক্ষককে স্থায়ী বহিষ্কার এবং বিশ্ববিদ্যালয় বাদী হয়ে মামলা করবে। এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কে এম নূর আহমেদ বলেন, বিশেষ সিন্ডিকেট সভায় ধর্ষণ চেষ্টাকারী সেই শিক্ষকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মামলার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মামলা করার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

সিন্ডিকেট সদস্য মোহাম্মদ আলী বলেন, দুইটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অভিযুক্ত শিক্ষককে চাকরি থেকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিন্ডিকেট। আমরা বিকেল চারটা থেকে রাত পৌঁনে দশটা পর্যন্ত দুইটি তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ করেছি।

এর আগে রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহবুবুল মতিনের বিরুদ্ধে গত ১ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য বরাবর অভিযোগপত্র দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। অভিযোগে বলা হয়, থিসিস চলাকালীন সুপারভাইজার (অধ্যাপক) কর্তৃক যৌন হয়রানি ও নিপীড়নের শিকার হন তিনি। ল্যাবে একা কাজ করার সময় এবং কেমিক্যাল দেয়ার বাহানায় নিজ কক্ষে ডেকে দরজা আটকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন ওই শিক্ষক। তবে অভিযুক্ত অধ্যাপক অভিযোগটি সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেন।