এবার ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা জবি শিক্ষার্থীদের


Desk report | Published: 2024-07-07 20:42:57 BdST | Updated: 2024-07-15 01:50:32 BdST

কোটা আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। রোববার (৭ জুলাই) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফেসবুক গ্রুপ ‘বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন’ থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের নেতারা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন কর্মসূচি ঘোষণার পর থেকেই বিভিন্ন ব্যাচের শ্রেণি প্রতিনিধিরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৬ বিভাগের মধ্যে ৩৩ বিভাগ ও দুটি ইনস্টিটিউটের ১২৯টি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

শিক্ষার্থীরা জানান, শিক্ষকরা তাদের আন্দোলন শেষ করে ক্লাসে ফিরলেও আজ থেকে আমরা কেউ ক্লাসে ফিরবো না এবং কোনো রকম একাডেমিক কার্যক্রমে অংশ নেবে না।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও ইংরেজি, বাংলা, প্রাণিবিদ্যা, রসায়ন, গণিত, ইসলামিক স্টাডিজ ও ইতিহাস বিভাগের চলমান সব ব্যাচ কোটা আন্দোনের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে সব ধরনের ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করেন।

এছাড়া আইন, চারুকলা, নাট্যকলা, পদার্থবিজ্ঞান, পরিসংখ্যান, কম্পিউটার সায়েন্স ও ইঞ্জিনিয়ারিং, শিক্ষা ও গবেষণা ইন্সটিটিউট, আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, দর্শন, অর্থনীতি, পরিসংখ্যান, লোকপ্রশাসন, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ, হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা, ফিন্যান্স, মার্কেটিং, সমাজবিজ্ঞান, নৃবিজ্ঞান, মনোবিজ্ঞান, উদ্ভিদবিজ্ঞান, ফিল্ম ও টেলিভিশন, সমাজকর্ম, প্রাণিবিদ্যা, ফার্মেসী, প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান, অনুজীব বিজ্ঞানসহ একাধিক বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরিক্ষা বর্জনের তথ্য জানা গেছে।

 

এদিকে রোববার কোনো কর্মসূচি পালন না করলেও সোমবার বিক্ষোভ সমাবেশ ও পথসভা কর্মসূচি পালন করবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, সরকারি চাকরিতে কোটা নিয়ে ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালসহ ৪ দাবি নিয়ে শিক্ষার্থীরা গত ১ জুলাই থেকে আন্দোলন করছেন।