শেখ হাসিনাকে ‘হত্যার হুমকি’ ঘোলাজলে মাছ শিকারের অপকৌশল


DU Correspondent | Published: 2023-05-25 03:19:31 BdST | Updated: 2024-04-12 18:17:08 BdST

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেওয়া ‘হত্যার হুমকি’র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের সংগঠন নীল দল।

বিবৃতিতে এ ধরনের হীন প্রচেষ্টা দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ঘোলাজলে মাছ শিকারের অপকৌশল বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

বুধবার নীল দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সীতেশ চন্দ্র বাছার, যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. আমজাদ আলী ও অধ্যাপক ড. রফিক শাহরিয়ার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়েছে।

পাশাপাশি হুমকিদাতাকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানানো হয়েছে এই বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত ১৯ মে রাজশাহী জেলা ও মহানগর বিএনপির সমাবেশে রাজশাহী জেলা বিএনপির আহ্বায়ক মো. আবু সাঈদ চাঁদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নীলদল তার এই ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে এবং তাকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছে।

 

আবু সাঈদ কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার তিন দিন অতিবাহিত হলেও বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো ধরনের দুঃখ প্রকাশ করা হয়নি। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয় যে, আবু সাঈদের বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার বিষয়টি শুধু তার একার বক্তব্য নয়। সেটি পক্ষান্তরে বিএনপির দলীয় পরিকল্পনার অংশ। জন্মলগ্ন থেকে হত্যা, ক্যু এবং ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা বিএনপি তার হত্যার রাজনীতি পরিহার করেনি; বরং হত্যা ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। বিএনপি ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাধ্যমে শেখ হাসিনাসহ সকল কেন্দ্রীয় নেতাকে হত্যা করে আওয়ামীলীগকে নেতৃত্বশূন্য করার ঘৃণ্য পরিকল্পনা গ্রহণ করেছিল। ২০১৩-২০১৪ সালে আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে বিভীষিকাময় পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ক্ষমতা দখলের অপচেষ্টা চালিয়েছিল। তাদের সেই হত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞের অপরাজনীতি এখনো চলমান আছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন অর্থনৈতিক ও প্রযুক্তিসহ সকল ক্ষেত্রে দ্রুত গতিতে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে, তার নেতৃত্ব যখন বিশ্বের অনেক দেশের কাছে রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে, তখন বিএনপির গাত্রদাহ হচ্ছে। তাই তারা যেকোনো ভাবেই হোক শেখ হাসিনা সরকারের পতন ঘটাতে নীল নকশা প্রণয়ন করেছে। ২০ ও ২১ মে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার বক্তব্যে যেকোনো উপায়ে আওয়ামী লীগ সরকারকে গদিচ্যুত করার কথা বলেন।

প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে এতে বলা হয়, তাদের এ ধরনের হীন প্রচেষ্টা দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ঘোলাজলে মাছ শিকারের অপকৌশল বলে আমরা মনে করি। দেশের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করা এবং অর্থনৈতিক অগ্রগতির পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির যে কোন ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করার জন্য দেশপ্রেমিক জনগণকে সজাগ থাকার আহ্বান জানাই। তাদের এই দেশবিরোধী সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও হত্যার রাজনীতিকে শক্ত হাতে প্রতিহত করার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নীলদল বাংলাদেশ সরকারের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছে এবং গণতন্ত্র রক্ষার্থে এ ধরনের ষড়যন্ত্র ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করছে।