দুই পক্ষে সংঘর্ষ : কাজে যোগ দেননি চমেকের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা


Chittagong | Published: 2021-04-28 20:13:16 BdST | Updated: 2021-07-24 05:11:43 BdST

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের জেরে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই কর্মবিরতি শুরু করছেন ইন্টার্ন চিকিৎসকদের একাংশ।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) হাসপাতালের কোনো ওয়ার্ডেই ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কাজে যোগ দেননি বলে জানা গেছে।

এরই মধ্যে দুপুরে চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ূন কবিরের নেতৃত্বে একটি সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিবাদমান দুই পক্ষ অংশ নেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারীরা দাবি করছেন ক্যাম্পাসে বহিরাগতরা এসে চিকিৎসকদের ওপর হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীদের শাস্তি এবং ক্যাম্পাসে বহিরাগত নিষিদ্ধ না করলে তারা কাজে যোগ দেবেন না।

আবার শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল অনুসারীদের দাবি, তাদের ওপর কারণে-অকারণে হামলা করছে নাছির অনুসারীরা।

জানতে চাইলে চমেক ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন ইসলাম শিমুল বলেন, ‘গতকাল বহিরাগত সন্ত্রাসীরা কয়েকজন ইন্টার্ন চিকিৎসককে লাঞ্ছিত ও আহত করেছে। তার প্রতিবাদে কর্মবিরতি চলছে। হামলাকারী বহিরাগতদের সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত কর্মবিরতি চলবে।’

বৈঠকের বিষয়ে জানতে চাইলে চমেক হাসপাতাল পরিচালক এস এম হুমায়ূন কবির বলেন, ‘সকালে কিছু চিকিৎসক কাজে যোগ না দেয়ায় তাদের দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠক হয়েছিল। সেখানে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। চমেক ক্যাম্পাসে আইডি কার্ড ছাড়া প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়া আগামীকাল একজন অধ্যাপকের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট কমিটি করা হচ্ছে। তারা ক্যাম্পাসের আইনশৃঙ্খলার বিষয়গুলো দেখবেন।’

আন্দোলনকারীদের দাবির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কাউকে তো রাস্তা থেকে ধরে এনে শাস্তি দেয়া যাবে না। আমরা প্রথমে এই সংঘর্ষের নেপথ্যে কারা জড়িত, তাদের শনাক্ত করছি। শনাক্তের পর তাদের শাস্তির আওতায় আনা হবে।’

সূত্রে জানা গেছে, চমেক ছাত্রলীগের একটি পক্ষ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন অনুসারীদের। অপরপক্ষ শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল অনুসারীদের। ক্যাম্পাসে গত একবছরে উভয়পক্ষের মধ্যে কয়েকদফা সংঘর্ষ হয়। এসব সংঘর্ষে আহত কিংবা মামলার ঘটনাও ঘটে।

সবশেষ গতকাল মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) সিএমসি ক্যান্টিনে এক ছাত্রলীগ নেতাকে কটূক্তির ঘটনায় উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে অন্তত পাঁচজনের আহত হওয়ার কথা বলে পুলিশ। এর জের ধরে বুধবার কাজে যোগ দেননি ইন্টার্ন চিকিৎসকদের একাংশ।