ডিআইইউ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে শিক্ষার্থীদের ভাবনা ও প্রত্যাশা


Rakibul Islam | Published: 2024-04-07 23:31:32 BdST | Updated: 2024-05-29 09:18:07 BdST

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ) দেশের প্রথম সারির একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়। ডিআইইউ প্রতিষ্ঠার প্রাথমিক পরিকল্পনা ১৯৯৪ সালে শুরু হলেও ১৯৯৫ সালের ৭ এপ্রিল তা প্রতিষ্ঠিত হয়। নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে আজ প্রতিষ্ঠার ২৯ বছরে পা রেখেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। শিক্ষা-বিনির্মানে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে প্রায় ৮ হাজার ১৭৪ জন শিক্ষার্থী অধ্যয়নরত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশা-প্রাপ্তি ও ভাবনাগুলো ক্যাম্পাস টাইমসের পাঠকদের কাছে তুলে ধরছেন মোঃ রাকিবুল ইসলাম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোমুগ্ধকর পরিবেশ-

আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আদিবা নাসরিন বলেন, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আজ থেকে ২৯ বছর আগে ১৯৯৫ সালে আজকের এই দিনে প্রতিষ্ঠিত হয়৷ এই বিশ্ববিদ্যালয়ের যে বিষয়টি আমাকে মু্গ্ধ করেছে সেটি হলো শিক্ষকদের বন্ধুত্ব সুলভ আচরণ। এবং তারা সকল বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করেন৷ তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে মনোমুগ্ধকর পরিবেশ৷ শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য রয়েছে বিনামূল্যে ট্রান্সপোর্ট সার্ভিস৷ এখান থেকে পড়াশোনা করে অনেক শিক্ষার্থী তার কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছেছে এবং সফল হয়েছে৷ আমিও চাই আমি আমার লক্ষ্যে পৌঁছাতে এবং সেই পথ আমার বিশ্ববিদ্যালয় খুবই সহজ করে দিচ্ছে৷

কাজের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ুক বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম-

ফার্মেসি বিভাগের শিক্ষার্থী ফাহমিদা আক্তার ইমা বলেন, ২০২১ এ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাথে পরিচিত হই। ভর্তি হই তাদের ২০০৬ সাল থেকে খ্যাতনামা ফার্মাসি বিভাগে। যেখান থেকে পাশ করা অনেকে দেশ বিদেশে সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। অত্যাধুনিক ল্যাব ও দক্ষ শিক্ষক দ্বারা পুর্ণ এই বিভাগ। প্রথমদিকে অনলাইনে ক্লাস করার কারণে সেভাবে সব কিছুর সাথে পরিচিত হতে পারি নি। তবে প্রথম যেদিন ক্যাম্পাসে গেছি নিরিবিলি শান্ত পরিবেশ দেখে ভালো লেগেছে। প্রথমবার হোস্টেল জীবনে পদার্পন হওয়াতে হোস্টেলটি ভালো লেগেছে সবকিছু নিয়মের মধ্যে এবং সব গুছানো। নিরাপত্তাও খুবই জোরদার। সবমিলিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক থেকে পিয়ন সব কর্মকর্তা এবং কর্মচারীর সঙ্গে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার সম্পর্ক গড়ে উঠুক এই ক্যাম্পাসেই। কখনো ক্যাম্পাস কিংবা ক্যাম্পাসের বাইরে আমার কাজে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উজ্জ্বল হোক এটাই আমার প্রত্যাশা।

ডিআইইউ একটি ভালোবাসার নাম-

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী শাফায়েত হোসেন বলেন, সাধারনত বিশ্ববিদ্যালয় বলতে আমরা বুঝি, এমন এক জায়গা যেখানে উচ্চ শিক্ষা দেয়া হয়। কিন্ত ডিআইইউতে এর বাহিরেও জনসেবার মাধ্যমে নতুন নতুন জ্ঞানের প্রয়োগ করা হয়। এছাড়াও কাজের বাজারের জন্য প্রস্তুত করতে একজন শিক্ষার্থীকে সহযোগিতা করে। একজন আদর্শ নাগরিক গঠন করতে, জ্ঞান এবং প্রযুক্তি উৎপন্ন করতে, বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তিগত গবেষণা করতে, কলা ও সমাজ বিজ্ঞানে শিক্ষিত পেশাদার তৈরি, কাজের বাজারের জন্য প্রস্তুত করতে এই সব কিছুই ডিআইইউতে পরিলক্ষিত করা হয়। আবার যে বিষয়টি ডিআইইউকে একটি পরিপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রাধান্য দেয় সেটা হলো মানবিক ও সামাজিক বিদ্যার প্রতি মনোযোগ। সব মিলিয়ে ডিআইইউ একটি ভালোবাসার নাম।