বাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর শ্লীলতাহানি, টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ


Desk report | Published: 2024-05-13 18:00:21 BdST | Updated: 2024-05-29 09:14:33 BdST

লোকাল বাসে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবির) এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় আবারও উত্তাল যবিপ্রবির ক্যাম্পাস। সোমবার (১৩ মে) দুপুর সাড়ে ১২ টার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনের সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এতে যশোর চৌগাছা সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি একাধিকবার কথা বলে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করে কিন্তু রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সড়কে অবস্থান করছেন শিক্ষার্থীরা।

জানা যায়, বহিরাগত মাসুদ নামের এক যুবক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে লোকাল বাসে শ্লীলতাহানি করে। পরবর্তীতে এ ঘটনা জানাজানি হলে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডক্টর মো. আনোয়ার হোসেন উপস্থিত হয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপরাধীকে গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিলে আন্দোলনকারীরা ঘরে ফিরে যান। কিন্তু ঘটনার ২৪ ঘটনা অতিক্রম করলেও অপরাধী গ্রেপ্তার না হওয়ায় আজ দুপুর ১২ টায় আবার বিক্ষোভ শুরু করেন শিক্ষার্থীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের সকালের বাস মিস করায় ধর্মতলা থেকে ক্যাম্পাসগামী লোকাল বাসে ওঠে ভুক্তভোগী ঐ শিক্ষার্থী। পথিমধ্যে চূড়ামনকাঠি থেকে মাসুদ নামের এক যুবক ওঠে ঐ বাসে। বাসে সিট খালি না থাকায় ঐ শিক্ষার্থীর পাশে দাঁড়ায় মাসুদ। বাসে ভিড় থাকায় ঐ ছাত্রীর শরীরে স্পর্শ করতে থাকে ঐ যুবক। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী অভিযুক্ত মাসুদকে সরে যেতে বললে, কথা না শুনে পুনরায় স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার চেষ্টা করে ঐ যুবক। এ সময় বাসে থাকা যাত্রীদের বিষয়টি অবহিত করলে তারাও কোন সুরাহা করতে পারেননি।

একপর্যায়ে বাসটি ক্যাম্পাসের গেটে আসলে ভুক্তভোগীর সঙ্গে নেমে পড়েন মাসুদ। তবে বিষয়টি ক্যাম্পাসে জানাজানি হবার পূর্বেই ছেলেটি পালিয়ে যায়। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী ঘটনাটি সহপাঠীদের জানালে বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ শুরু করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেয় তারা। এদিকে বিচারের দাবিতে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ঐ ছাত্রী।