রাবিতে ৭ম ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন ১৫ ফেব্রুয়ারি


Shoeb Shuvro | Published: 2024-02-11 23:04:54 BdST | Updated: 2024-03-04 21:02:58 BdST

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ৭ম ছায়া জাতিসংঘ সম্মেলন শুরু আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি। চার দিনব্যাপী এ সম্মেলন চলবে ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রযুক্তিগত উন্নয়ন এবং স্থায়িত্ব অর্জন: একটি সমৃদ্ধ বাস্তুতন্ত্রের জন্য নৈতিকতা, উদ্ভাবন এবং 'বৈশ্বিক সমন্বিত চর্চার মাধ্যম' এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় মডেল ইউনাইটেড নেশনস এসোসিয়েশন (আরইউমুনা)।

রোববার(১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ক্যাফেটারিয়ায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান আরইউমুনার সভাপতি মোজাহিদ তালুকদার।

সংবাদ সম্মেলনে মোজাহিদ তালুকদার জানান, বৈশ্বিক নিরাপত্তাহীনতা দূরীকরণ করে আন্তঃসীমান্ত ভ্রাতৃত্ব বজায় রাখার মাধ্যমে শান্তি রক্ষা করা এবারের ছায়া জাতিসংঘের লক্ষ্য। এতে দেশের প্রায় ৬০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ৩৫০ জন শিক্ষার্থী বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধি হিসেবে অংশগ্রহণ করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, জাতিসংঘের আদলে ৮টি কমিটি নিয়ে এবারের সম্মেলন আয়োজন করা হবে। এগুলো হলো জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ, উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংস্থা, জাতিসংঘ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক পরিষদ, জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থা, আন্তজার্তিক নবায়নযোগ্য জ্বালানি সংস্থা, বাংলাদেশ বিষয়ক বিশেষায়িত পরিষদ, বিশ্ব ব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা। ছায়া জাতিসংঘের কমিটি গুলো সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. ওয়াজেদ মিয়া একাডেমিক ভবনে পরিচালনা করা হবে।

আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায় বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে সম্মেলনটির উদ্বোধন করবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও আরইউমুনার প্রধান উপদেষ্টা শাহ আজম। এছাড়াও উপস্থিত থাকবেন আরইউমুনার উপদেষ্টা সহকারী অধ্যাপক হেমন্ত কুমার ভদ্র।

এদিকে ১৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে বিকেল ৩টায় সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠিত হবে। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ী প্রতিনিধিদেরকে ক্রেস্ট প্রদান করা হবে।

আজকের সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আরইউমুনার উপদেষ্টা সহকারী অধ্যাপক হেমন্ত কুমার ভদ্র, আরইউমুনার সাবেক এবং বর্তমান অর্ধশতাধিক সদস্য।

উল্লেখ্য, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় জাতিসংঘ ছায়া সংসদ একটি বিতর্ক সংস্থা। জাতিসংঘের অধিবেশনে যে ধারায় বিতর্ক হয় তার আদলেই দেশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাতিসংঘের ন্যায় কমিটি গঠন করে ২০১৩ সাল থেকে বিতর্ক করে যাচ্ছে আরইউমুনা। দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের আন্তর্জাতিক উপায়ে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে উপযোগী করাই আরইউমুনার মূল লক্ষ্য।



//