ছাত্রলীগ কখনো অন্যায়ের সঙ্গে আপস করেনি: সাদ্দাম


DU Correspondent | Published: 2024-02-25 16:35:09 BdST | Updated: 2024-07-24 05:30:27 BdST

ছাত্রলীগ সমস্ত ধরনের প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবিলা করে যুগ যুগ ধরে লড়াই করে গেছে। মৃত্যুর ভয়ে কখনো ভীত হয়নি এবং অন্যায়ের সঙ্গে কখনো আপস করেনি বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাদ্দাম হোসেন।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে ৯০-এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে শহীদ শহীদুল ইসলাম চুন্নু’র ৩৫তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে হল ছাত্রলীগের আয়োজনে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় একথা বলেন তিনি।

সাদ্দাম বলেন, প্রত্যেক বছর ২৫ ফেব্রুয়ারি শহীদুল ইসলাম স্মরণে জহুরুল হক হলে আমরা ঢাবির বর্তমান শিক্ষার্থীরা মিলিত হই। বিশেষ করে, ছাত্রলীগের যারা নবীনকর্মী রয়েছে তাদের জন্য। আমাদের সংগঠনের লড়াই-সংগ্রাম, আত্মত্যাগ, সংগঠনের রক্তঝরার ইতিহাস, এই সংগঠনের সাহসী ভূমিকার ইতিহাস জানা যায়। সমস্ত ধরনের প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবিলা করে যুগে যুগে এই সংগঠন লড়ে গেছে, কখনো আপস করেনি, মৃত্যুর ভয়ে কখনো ভীত হয়নি। অসত্য অন্যায়ের সামনে কখনো মাথা নত করেনি। সেই শিক্ষা গ্রহণ করার স্মারক দিনগুলোর অন্যতম হচ্ছে শহীদুল ইসলাম চুন্নুর মৃত্যুবার্ষিকী।

তিনি বলেন, আমাদের আজকের এই গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ, আজকের এই সাংবিধানিক শাসনের বাস্তবতা কিংবা সন্ত্রাসমুক্ত শিক্ষাঙ্গন নিশ্চিত করতে গিয়ে ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মীকে রক্ত ঝরাতে হয়েছে। ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মীর রক্তের বিনিময়ে আজকে সাধারণ শিক্ষার্থীরা নির্বিঘ্নে ক্লাস করছে, লেখাপড়া করছে এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একটি আনন্দময় জীবন তারা উদযাপন করতে পারছে।

সাদ্দাম আরও বলেন, আমরা শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করছি। যেকোনো মূল্যে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করার স্বার্থে, গণতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ ক্যাম্পাস নিশ্চিত করার স্বার্থে আগামী দিনেও যেন আমরা সঠিক রাজনৈতিক অবস্থান গ্রহণ করতে পারি, আমাদের নেতাকর্মীরা যেন সোচ্চার থাকে এবং আদর্শে বলিয়ান হয়ে অকাতরে যেন রক্ত ঝরাতে পারে। আজকের এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সব স্তরের নেতা ও শিক্ষার্থীদের প্রতি সেই আহ্বান রাখছি।

স্মরণ সভায় শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল ছাত্রলীগের সভাপতি কামাল উদ্দিন রানার সভাপতিত্বে হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আব্দুর রহিম, ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব মোল্লা আবু কাওসার, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাজহারুল কবির শয়নসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।