জবির কেন্দ্রীয় মসজিদে সন্ধ্যার পর ছাত্রীদের প্রবেশ নিষেধ


Desk report | Published: 2024-05-27 18:25:13 BdST | Updated: 2024-06-19 14:30:43 BdST

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদে সন্ধ্যার পর থেকে ছাত্রীদের অবস্থান করতে নিষেধ করা হয়েছে। মাগরিবের নামাজ আদায় করতে পারলেও ছাত্রীদের মসজিদে এশার নামাজ আদায়ের অনুমতি নেই।

গতকাল রোববার (২৬ মে) থেকে এই নির্দেশনা কার্যকর হয়েছে। মাগরিবের পরপর মসজিদে মেয়েদের জায়গা বন্ধ থাকতে দেখা যায়।

এটা নিয়ে বিভিন্ন মহলে চলছে নানা আলোচনা। ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা।

এর আগে গত সপ্তাহে প্রক্টর অফিস থেকে মেয়েদের নামাজের জায়গা বিকেলের পর থেকে বন্ধ রাখতে বলা হয়। পরবর্তী সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদে নামাজ পড়ুয়া ছাত্রীরা প্রক্টর অফিসে গিয়ে মসজিদ খোলা রাখতে অনুরোধ জানান। মাগরিবের নামাজ যেন মসজিদে আদায় করতে পারেন, সেজন্য অনুমতি চান ছাত্রীরা। প্রক্টর অফিস মাগরিবের নামাজ আদায় পর্যন্ত অনুমতি দেয়, তারপর বন্ধ রাখতে বলে।

জানা যায়, গত ১৮ মে রাতে কেন্দ্রীয় মসজিদে মেয়েদের নামাজ পড়ার জায়গায় একজন ছাত্রী দীর্ঘ সময় ধরে অবস্থান করেছিলেন। খোঁজ পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমাম সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর জাহাঙ্গীর হোসেনকে ফোনে জানান। পরে প্রক্টরিয়াল টিম আসার আগেই মেয়েটি মসজিদ ত্যাগ করেন। তাকে মসজিদে না পেয়ে প্রক্টরিয়াল টিম মসজিদের ইমামকে নানা প্রশ্ন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বলছে, মসজিদে নারীদের নামাজ পড়ার জন্য ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা শুয়ে থাকে, পড়াশোনা করে। এজন্য সন্ধ্যার পর প্রবেশ করতে না করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আইনুল ইসলাম বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে বন্ধ রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রক্টর অফিস জানে, আমি জানি না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক হুমায়ুন কবির চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে প্রক্টরের সাথে কথা বলতে বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীদের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এখানে একটি ঘটনা আছে, বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।