রাবিতে পরীক্ষার ৭ মাসেও হয়নি ফল, সেশনজটে শিক্ষার্থীরা


RU Correspondent | Published: 2023-08-25 16:06:19 BdST | Updated: 2024-04-21 19:56:13 BdST

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের ২০২০-২১ সেশনের শিক্ষার্থীদের প্রথম বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ হয়েছে গত ফেব্রুয়ারি মাসে। পরীক্ষা শেষের সাত মাস পেরিয়ে গেলেও এখনো ফল প্রকাশ হয়নি। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ অনুসারে পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা রয়েছে। এদিকে ফল প্রকাশে দেরি হওয়ায় সেশনজটের শঙ্কায় পড়েছেন শিক্ষার্থীরা।

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ১১ ডিসেম্বর ২০২০-২১ সেশনের শিক্ষার্থীদের প্রথম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়। লিখিত পরীক্ষা শেষ হয় ২০২৩ সালের ২৯ জানুয়ারি। সর্বশেষ ভাইভা হয় ১ ও ২ ফেব্রুয়ারিতে। তবে পরীক্ষা শেষ হওয়ার সাত মাস কেটে গেলেও এখনও ফলাফল প্রকাশিত হয়নি।

বিভাগের শিক্ষার্থীরা বলেন, আমাদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল গত বছরের নভেম্বরে। তবে দুইদফা পিছিয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় ডিসেম্বরে। পরীক্ষা শেষ হওয়ার সাত মাস পেরিয়ে গেলেও আমাদের ফলাফল প্রকাশিত হয়নি। গত দুই মাস ধরে আমরা স্যারের কাছে ফলাফল প্রকাশের তারিখ জানতে চেয়ে আসছি। প্রতিবারই তিনি বলেন ‘আগামী সপ্তাহে দিব’। কিন্তু সেই আগামী সপ্তাহ আমাদের আর আসছে না। কয়েকদিন আগে পরীক্ষা কমিটির সভাপতি বলেন, বিভিন্ন কোর্সের শিক্ষকরা খাতা জমা না দেওয়ায় ফল প্রকাশে দেরি হচ্ছে।

তারা আরও বলেন, ফলাফল খারাপ হলে অনেকেই ইম্প্রুভমেন্ট (মানোন্নয়ন) দিতে চাই। কিন্তু ফলাফল প্রকাশিত না হওয়ায় কেউ জানতে পারছে না তাদের কোন বিষয়ে খারাপ হয়েছে। তাছাড়া এমনিতেই আমাদের বিভাগে সেশনজট আছে, রেজাল্ট প্রকাশ করতে এভাবে দেরি হলে আরও জটিলতার মধ্যে পড়তে হবে।

এর আগে, ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ হওয়ার আট মাস পর ফলাফল প্রকাশিত হয়। অন্যদিকে, ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ১১৮ শিক্ষার্থী ১৬তম বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস (বিজেএস) নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারেনি। সঠিক সময়ে স্নাতক চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা সম্পন্ন না হওয়ায় তারা এই নিয়োগ পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত হয়।

এই বিষয়ে কথা হয় প্রথম বর্ষের পরীক্ষা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. জুলফিকার আহম্মদের সঙ্গে। তিনি বলেন, ফলাফল আমাদের হয়ে গেছে তবে তৃতীয় পরীক্ষকের কাছে কিছু খাতা আটকে ছিল যার কারণে ফলাফল প্রকাশে দেরি হয়েছে। আমরা আগামী সপ্তাহে ফলাফল দিতে পারবো।

এই বিষয়ে আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. এম. হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, পরীক্ষা কমিটির প্রধানকে ইতোমধ্যে আমি জানিয়েছি। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে ফলাফল প্রকাশিত হবে।