নটরডেমে পাসের হার ৯৯.৫৬ শতাংশ, অকৃতকার্য ১৯


Desk report | Published: 2023-11-26 13:30:44 BdST | Updated: 2024-07-15 01:39:20 BdST

চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। রোববার (২৬ নভেম্বর) ফল প্রকাশের পর আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠেন রাজধানীর নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ বছর নটরডেমে পাসের হার ৯৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ। অকৃতকার্য হয়েছেন ১৯ জন।

গত বছর নটরডেমে এইচএসসিতে পাসের হার ছিল ৯৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ। গতবারের তুলনায় এবার জিপিএ-৫ এর সংখ্যাও কমেছে। 

এইচএসসির ফল ঘোষণার পরপরই নটরডেমে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবক ও শিক্ষকরাও আনন্দে মেতে ওঠেন। বিজয়ের ‘ভি’ চিহ্ন দেখিয়ে ক্যামেরাবন্দি হন শিক্ষার্থীরা। ইন্টারনেটে আগেই ফল জানলেও সহপাঠীদের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করতে শিক্ষার্থীরা ছুটে আসেন কলেজ ক্যাম্পাসে। প্রিয় শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করে ফলাফল জানাচ্ছেন, দোয়া নিচ্ছেন তারা।

রোববার সাড়ে ১২টায় কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা যায়, উচ্ছ্বাসে মেতে উঠেছেন শিক্ষার্থীরা। কলেজে ফলাফল ঘোষণার পর শিক্ষার্থীরা হর্ষধ্বনি দিয়ে আনন্দ উদযাপন করেন। সহপাঠীরা একে অপরকে নিজের ফলাফল জানান, নাচ-গান গেয়ে মিষ্টি বিতরণ করেন।

নটরডেম কলেজ থেকে এবছর এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে রেজিস্ট্রেশন করেন ৩ হাজার ২১৪ জন ছাত্র। এর মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ৩ হাজার ২০৮ জন। পাস করেছেন ৩ হাজার ১৯৪ জন। পাসের হার ৯৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২ হাজার ৫২০ জন। গতবার অর্থাৎ ২০২২ সালে জিপিএ-৫ পেয়েছিলেন ২ হাজার ৯০১ জন এবং পাসের হার ছিল ৯৯ দশমিক ৮৮ শতাংশ। বিগত বছরের তুলনায় জিপিএ-৫ কমেছে ৩৮১ জন।

প্রকাশিত ফলাফলে দেখা গেছে, এবার কলেজটির বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছেন এক হাজার ৯৫৯ জন। অকৃতকার্য হয়েছেন ৮ জন। বাণিজ্য বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪৩১ জন এবং অকৃতকার্য হয়েছেন ৪ জন। মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১৩০ জন এবং অকৃতকার্য হয়েছেন ৭ জন।

বাণিজ্য বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া ফারহান বলেন, ‘পরিবার ও শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। শিক্ষকরা নিজের সন্তানের মতো স্নেহ করেছেন। সবচেয়ে বেশি খুশি লাগছে নিজের পরিবারকে সন্তুষ্ট করতে পেরে। আমাদের জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছেন তারা।’

জিপিএ-৫ পাওয়া ঈশান বলেন, ‘কঠোর পরিশ্রম বৃথা যায় না। এক্ষেত্রে আমাদের শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। আমাদের সফলতার পেছনে তাদের শ্রম রয়েছে। পরিবারের সাপোর্ট ছিল, সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা।’

মানবিক বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পাওয়া সৌরভ দাশ বলেন, ‘ভালো ফলাফলের জন্য শিক্ষক ও নিজ পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞ। আগামীতে দেশের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই।’